কাজী ফার্মসে নতুন স্বাদের চার পণ্য

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাণিজ্যমেলা উপলক্ষে চারটি নতুন স্বাদের ফ্রোজেন ফুড নিয়ে এসেছে কাজী ফার্মস কিচেন। ভোক্তাদের কাছে এগুলো পরিচিত করতে দেওয়া হচ্ছে বিশেষ ছাড়। তাৎক্ষণিকভাবে তৈরি করা সম্ভব বলে এগুলো যে কোনো আড্ডায়, বিকালের নাশতায় বা দ্রুত অতিথি আপ্যায়নে ব্যবহার করা যাবে। এ ছাড়া মেলায় প্রতিষ্ঠানটির প্রতিটি পণ্যেই মিলছে ৪০ টাকা পর্যন্ত নগদ ছাড়। সেই সঙ্গে প্যাভিলিয়নের একপাশে এসব খাবার রান্নার পদ্ধতি দেখিয়ে দেওয়া হচ্ছে। অর্ডার দিয়ে আপনি নিজেও খেতে পারবেন।

মেলায় ১৮৫ টাকা দামের চিকেন শামি কাবাব বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকায়, ২৫০ টাকার শ্রিম্প নোবাশি মিলছে ২১৫ টাকায়, ১২০ টাকা দামের ৫০০ গ্রাম ওজনের ভেজিটেবল শিঙাড়া পাওয়া যাচ্ছে ১০০ টাকা করে এবং ৫০০ গ্রাম ওজনের ২৬০ টাকার চিকেন সমুচা বিক্রি হচ্ছে ২২০ টাকা করে। এগুলো ফ্রিজে রেখে পরে ভেজেও খাওয়া যায়।

আকর্ষণীয়ভাবে সাজানো হয়েছে কাজী ফার্মস কিচেন প্যাভিলিয়নটি। তিন দিকেই নিজেদের উৎপাদিত বিভিন্ন পণ্য থরে থরে সাজানো। মেলায় ক্রেতাদের জন্য তারা এনেছে বিভিন্ন মানের আরও চারটি প্যাকেজ। এর মধ্যে ৪৬৫ টাকার প্যাকেজটি কিনলে ক্রেতারা ফ্রি পাচ্ছেন ৭৫ টাকা দামের প্লেইন পরোটা। প্যাকেজের আওতায় রয়েছে ৯০ টাকার ডালপুরি, ১৮০ টাকার চিকেন টিজারস, ৮০ টাকার ভেজিটেবল শিঙাড়া এবং ১১৫ টাকার স্পাইসি চিকেন সস (৫ পিস)। ৬২৫ টাকার প্যাকেজে রয়েছে ১৮৫ টাকার শ্রিম্প স্পিং রোল, ১৫০ টাকার স্পাইসি চিকেন মিটবল, ৮০ টাকার ভেজিটেবল শিঙাড়া এবং ২১০ টাকার চিকেন স্ট্রিপস। এই প্যাকেজ কিনলে ক্রেতারা ফ্রি পাবেন ১১৫ টাকার স্পাইসি চিকেন সস (৫ পিস)।

৭৭০ টাকার প্যাকেজে রয়েছে ১৪৫ টাকার চিকেন স্প্রিং রোল, ১৮০ টাকার শ্রিম্প সমুচা, ১১৫ টাকার চিকেন সস, ৮০ টাকার ভেজিটেবল শিঙাড়া এবং ২৫০ টাকার ফ্যামিলি পরোটা। প্যাকেজটি কিনলে মিলবে ১৫০ টাকার স্পাইসি চিকেন মিটবল। আর ১ হাজার ১০৫ টাকার প্যাকেজে পাওয়া যাবে ১১৫ টাকার স্পাইসি চিকেন নাগেটস, ৯০ টাকার কিমা পরোটা, ২১৫ টাকার (১০ পিস) স্পাইসি চিকেন সস, ২১০ টাকার চিকেন স্ট্রিপস, ৮০ টাকার আলুপুরি, ১৩৫ টাকার চিকেন সমুচা এবং ২২৫ টাকার চিকেন ললিপপ। এই প্যাকেজ কিনলে ফ্রি পাবেন ২৫০ টাকা দামের ফ্যামিলি পরোটা।

তারা প্যাকেজের পাশাপাশি আলাদাভাবেও বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করছে। প্রতিটি পণ্যেই রয়েছে বিশেষ ছাড়। মেলায় বিভিন্ন ধরনের বেলিসিমো আইসক্রিমও এনেছে কাজী। প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা মো. আল আমিন জানান, মূলত কোম্পানির উৎপাদিত পণ্যের প্রচার বাড়ানোর লক্ষ্যেই মেলায় অংশ নিয়েছেন তারা। ক্রেতাদের আকর্ষণের জন্য দিয়েছেন বিশেষ ছাড়। এ সুবিধা পেয়ে ক্রেতারা তাদের পণ্য কিনছেনও বেশ।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে