কুমিল্লার স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে চাটখিলে গলা কেটে হত্যা

যুবলীগ নেতাসহ ৬ জন আটক

  নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা ও চাটখিল প্রতিনিধি

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে অপহরণের পর গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। নিখোঁজের ৭ দিন পর গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ চাটখিল উপজেলার চাটগাঁও ইউনিয়নের একটি পুকুর থেকে তার বস্তাবন্দি গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পুলিশ লাকসাম পৌর এলাকার ৭ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সহ-সভাপতি ছায়েদুল হক জুয়েলসহ ৭ জনকে আটক করেছে।

নিহত স্বর্ণ ব্যবসায়ী হলেন নিতাই দেবনাথ। তিনি দেবীদ্বার উপজেলার সাইতলা গ্রামের নারায়ণ দেবনাথের ছেলে। দীর্ঘদিন ধরে লাকসাম শহরের সোহাগ মৎস্য খামারের ভেতরে কাজী আবদুর রশিদের বাড়িতে ভাড়া থেকে মনোহরগঞ্জ উপজেলার আশিরপাড় বাজারে স্বর্ণের ব্যবসা করতেন তিনি।

পুলিশ ও পরিবারিক সূত্র জানায়, ৭ ফেব্রুয়ারি বিকালে লাকসাম শহরের ভাড়াবাসা থেকে নিজ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার পথে নিতাই দেবনাথ নিখোঁজ হন। ওইদিন রাতে তার ভাই গৌরাঙ্গ দেবনাথ লাকসাম থানায় জিডি করেন।

লাকসাম থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ জানান, ১৩ ফেব্রুয়ারি রাতে এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে লাকসাম পৌর এলাকার ৭ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সহ-সভাপতি ছায়েদুল হক জুয়েলসহ চারজনকে আটক করা হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে পুলিশ অন্য তিনজনের পরিচয় প্রকাশ করতে রাজি হয়নি। ওই চারজনের স্বীকারোক্তি মতে, লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ, ওসি (তদন্ত) আশরাফ হোসেন, এসআই মোবারক উল্লাহ চাটখিল থানা পুলিশের সহায়তায় অভিযান চালিয়ে চাটখিলের শংকরপুর গ্রামের নুর আলমের ছেলে লিটন (২৭) ও ওমরপুর গ্রামের দুলালের ছেলে বেলালকে (২৫) আটক করেন। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ওই পুকুর থেকে নিতাইয়ের বস্তাবন্দি গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় নিতাইয়ের ব্যবহৃত ঘড়ি, আংটি, মানিব্যাগ ও কিছু কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সূত্র জানায়, বেলাল ও লিটন শংকরপুর গ্রামের চিহ্নিত দুই সন্ত্রাসীর সহযোগী। চিহ্নিত ওই দুই সন্ত্রাসী মোটরসাইকেলে করে লাকসাম থেকে নিতাইকে অপহরণ করে নিয়ে ঘটনাস্থলে নিয়ে আসে এবং লিটন ও বেলালকে দিয়ে নৃশংস হত্যাকা-টি ঘটনায়।

চাটখিল থানার ওসি জাহিদুল আনোয়ার জানান, ঘটনাটি লাকসামের। এ কারণে ওই বিষয়ে লাকসাম থানার পুলিশ ব্যবস্থা নেবে।

খিলপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন জানান, তার ইউনিয়নে অন্য এলাকা থেকে লোকজন এনে হত্যা করছে একটি সংঘবদ্ধ চক্র। তাদের গ্রেপ্তারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
close