রাজশাহীতে জনসভা আজ

সুষ্ঠু নির্বাচনের গণআন্দোলন শুরুর আশা ঐক্যফ্রন্টের

  নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা ও রাজশাহী

০৯ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ১২:১৫ | প্রিন্ট সংস্করণ

রাজশাহীর আজ শুক্রবারের জনসভা থেকে সুষ্ঠু নির্বাচনের গণআন্দোলন শুরু হবে বলে মনে করছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এ জোটের রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়ক ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু গতকাল বৃহস্পতিবার এ আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, জনসভা থেকে এমন কর্মসূচি আসবে, যা দেশের রাজনীতির দৃশ্যপট পাল্টে দেবে। জনসমাগম ঠেকাতে বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠাসহ সাত দফা দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ রাজশাহীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা মাঠে জনসভা করছে ঐক্যফ্রন্ট।

এতে যোগ দিতে গতকালই বিমানযোগে ঢাকা থেকে রাজশাহী পৌঁছেন ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষনেতা জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু ও মো. শাহজাহান। সড়কপথে যান কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী। আজ গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এবং নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না প্রমুখ বিমানযোগে রাজশাহী পৌঁছবেন।

জনসভা প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, একটা অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের ভোটে ক্ষমতার পালাবদল চাই। এ জন্যই আমরা সাত দফা দাবি দিয়েছি। ইতোমধ্যে সিলেট, চট্টগ্রাম ও ঢাকায় ব্যাপক সাড়া পেয়েছি। রাজশাহীর মানুষও আমাদের সাত দফার পক্ষে রায় দেবে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়ক ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু বলেন, আওয়ামী লীগ বা প্রশাসন যত টালবাহানাই করুক না কেন, জনসমাগম কেউ ঠেকাতে পারবে না।

এর আগে গতকাল দুপুরে ঐক্যফ্রন্টের ব্যানারে মহানগর বিএনপির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মিনু বলেন, পুলিশের কিছু অতি উৎসাহী এবং উচ্চাভিলাষী কর্মকর্তা জনসভায় নানাভাবে বাধা দিচ্ছেন। জনসমাগম যেন কম হয়, সে জন্য বাস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে জনস্রোত ঠেকাতে পারবে না। এখান থেকেই সুষ্ঠু নির্বাচনের গণআন্দোলন শুরু হবে। এই জনসভা থেকে এমন কর্মসূচি আসবে, যা দেশের রাজনীতির দৃশ্যপট পাল্টে দেবে। অযোগ্য ব্যক্তিদের দিয়ে নির্বাচন কমিশন করা হয়েছিল, অভিযোগ করে মিনু বলেন, জনগণকে নিয়ে প্রয়োজনে আবার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে।

ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশকে কেন্দ্র করে বিএনপি নেতাকর্মীদের পুলিশ গ্রেপ্তার করতে শুরু করেছে বলে অভিযোগ করেছেন মহানগর বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।

জানতে চাইলে মহানগর পুলিশের মুখপাত্র ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার ইফতেখায়ের আলম আমাদের সময়কে বলেন, জনসভাকে কেন্দ্র করে কাউকে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না। নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে আমাদের কার্যক্রম চলছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে