sara

অ্যামনেস্টির সর্বোচ্চ সম্মাননাও খোয়ালেন সু চি

  আমাদের সময় ডেস্ক

১৪ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ০০:২৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

রোহিঙ্গা নির্যাতনের জেরে বিতর্কিত ভূমিকার জন্য এবার মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চির সর্বোচ্চ সম্মাননা প্রত্যাহার করেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। গত সোমবার আনুষ্ঠানিকভবে এ ঘোষণা দেয় সংগঠনটি। এ বিষয়ে এক বিবৃতিতে অ্যামনেস্টি জানায়, সু চি তার এক সময়ের নৈতিক অবস্থান থেকে লজ্জাজনকভাবে সরে গেছেন। এ কারণেই অ্যামনেস্টি সু চিকে একসময় তাদের সর্বোচ্চ সম্মাননা প্রত্যাহার করে নিচ্ছে। মিয়ানমারের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে ভূমিকা রাখার স্বীকৃতি হিসেবে ২০০৯ সালে সু চিকে ‘অ্যাম্বাসাডর অব কনসায়েন্স’ বা ‘বিবেকের দূত’ সম্মাননায় ভূষিত করেছিল এ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনটি।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মহাসচিব কুমি নাইডু জানিয়েছেন, এক চিঠির মাধ্যমে এরই মধ্যে এ সম্মাননা প্রত্যাহারের বিষয়টি সু চিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। নাইডু লিখেছেন, আট বছর আগে গৃহবন্দি থাকা নেত্রী সু চি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা গ্রহণের পর নিজের রাজনৈতিক নীতি-আদর্শ, ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার কথা ভুলে গেছেন। এমনকি

রোহিঙ্গাদের ওপর সেনাবাহিনীর চালানো জাতিগত নিধনযজ্ঞ এবং মত প্রকাশের স্বাধীনতার বিষয়ে তিনি উদাসীন।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলছে, সংস্থার একজন দূত হিসেবে সু চির কাছে তাদের প্রত্যাশা ছিল, শুধু মিয়ানমারের ভেতরে নয়, পৃথিবীর যে কোনো প্রান্তে অবিচারের বিরুদ্ধে তিনি নৈতিক কর্তৃত্ব ও ভূমিকা রাখবেন। কিন্তু আমরা গভীর দুঃখ ভারাক্রান্ত। কারণ সু চি আর আশা, সাহস এবং মানবাধিকার রক্ষার প্রতিনিধিত্ব করেন না। তাই আমরা আপনাকে দেওয়া ‘অ্যাম্বাসাডর অব কনসায়েন্স’ সম্মাননা অব্যাহত রাখার কোনো যৌক্তিকতা খুঁজে পাচ্ছি না। সংগঠনটি আরও বলছে, সু চি সাহায্য করুন আর নাই করুন, মিয়ানমারে বিচার ও মানবাধিকার নিশ্চিতের ব্যাপারে তারা তাদের লড়াই অব্যাহত রাখবে।

এর আগেও রোহিঙ্গা নির্যাতনের ঘটনায় কানাডার পার্লামেন্ট সু চিকে দেওয়া তাদের সম্মানসূচক নাগরিকত্ব প্রত্যাহার করে নেয়। এ ছাড়া যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড শহরের দেওয়া সম্মাননা, গ্লাসগো নগর কাউন্সিলের দেওয়া ফ্রিডম অব সিটি খেতাবসহ আরও অনেক সম্মাননা খোয়ান সু চি। এমনকি শান্তিতে তার নোবেল পুরস্কারও বাতিলের প্রস্তাব ওঠে। খবর : বিবিসির।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে