sara

সাপের দংশনে মৃত্যুর ডায়েরি

  আমাদের সময় ডেস্ক

২১ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সাপ ভয় পান নাÑ এমন লোক পাওয়া মুশকিল। কারণ ছোবল না খেলেও এর বিষ সম্পর্কে সহজাতভাবেই একটা ধারণা তৈরি হয় সবার। তাই সাপ দংশন করলেই বিষ নামানোর জন্য ব্যস্ততার সীমা থাকে না। তবে এমন এক মানুষের খবর পাওয়া গেছে, যিনি ছোবল খেয়েও চিকিৎসার জন্য কোথাও না

ছুটে উল্টো ডায়েরি লেখা শুরু করেন।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘটনাটি ১৯৫৭ সালের সেপ্টেম্বরের। শিকাগো শহরের ফিল্ড মিউজিয়াম অব ন্যাচারাল হিস্ট্রিতে ‘ব্লুমসø্যাং’ প্রজাতির একটি সাপ পাঠানো হয় গবেষণার জন্য। ওই মিউজিয়ামে ৩৩ বছর ধরে সাপ নিয়ে গবেষণা করেছেন ড. কার্ল পিটারসন স্মিথ। তার দায়িত্ব পড়ে ৭৬ সেন্টিমিটার দৈর্ঘ্যের ওই সাপটি পরীক্ষা করার। নিবিড়ভাবে পরীক্ষার জন্য সাপটিকে একদিন নিজের কাছাকাছি তুলে ধরেন স্মিথ। কিন্তু দুভার্গ্যক্রমে সেটি তার বাম হাতের বুড়ো আঙুলে ছোবল দেয়।

তবে কোনো ধরনের চিকিৎসার জন্য না ছুটে স্মিথ নিজের আঙুল থেকে রক্ত চুষে নিতে শুরু করেন। নিজের ওপর বিষের প্রভাব লেখার জন্য তিনি নোট খাতার দিকে মনোযোগ দেন। রেকর্ড করতে থাকেন বিষের প্রভাব। এ ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মৃত্যু হয় স্মিথের। মার্কিন রেডিও পিআরআইর ‘সায়েন্স ফ্রাইডে’ নামে একটি অনুষ্ঠানে এ নিয়ে ভিডিও প্রকাশ করা হয়, যার শিরোনাম ‘ডায়েরি অব এ স্নেকবাইট ডেথ’ অর্থাৎ ‘সাপের দংশনে মৃত্যুর ডায়েরি’। সেখানে ড. স্মিথের জীবনের শেষ কয়েক ঘণ্টার বিস্তারিত তুলে ধরা হয়।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে