নারীদের চোখ গহনায়

  ইশরাতুল জাহান

১২ জানুয়ারি ২০১৭, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

হাতে চুড়ি, কানে দুল আর গলায় পার্লের গহনা পরে থাইল্যান্ড প্যাভিলিয়নের বাইরে সেলফি তুলছেন স্নেহা। গহনা যে নারীদের আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে, তা স্নেহাকে দেখেই বোঝা যায়। সেলফি তোলা শেষে তিনি বলেন, প্রতিবছরই বাণিজ্যমেলায় আসি শুধু বিদেশি গহনা কেনার জন্য। এবারও কিনেছি। সামনে আরও কিনব। হাসতে হাসতেই তিনি বলেন, মেলায় এসে শুধু গহনা কিনেই সব টাকা শেষ হয়ে যায়। তারপরও যেন শখের শেষ হয় না।

চিরন্তন সৌন্দর্যের অবিচ্ছেদ্য অনুষঙ্গ গহনা। গহনায় নারী হয়ে ওঠে আরও মোহনীয়। মাটি থেকে শুরু করে দামি হীরা কোনোটি বাদ যায় না এসব গহনা তৈরিতে। তাই স্নেহার মতো অসংখ্য নারী বাণিজ্যমেলায় আসেন তাদের পছন্দের গহনা কিনতে। তাদের কথা মাথায় রেখেই প্রতিবারের মতো এবারও বাণিজ্যিমেলায় দেশি-বিদেশি গহনার পসরা সাজিয়ে বসেছেন বিক্রেতারা। তাই এসব স্টল বা প্যাভিলিয়নে নানা ধরনের গহনা দেখছেন, আর পছন্দমতো কিনে নিচ্ছেন নারীরা। বাজারের চেয়ে তুলনামূলক কম দামে মেলায় গহনা কেনা যায় বলেও জানান অনেকেই।

ডিজাইনে রয়েছে ভিন্নতা। স্বর্ণালঙ্কার, তামা, অ্যালুমিনিয়াম, বিভিন্ন শংকর ধাতু ও মাটি দিয়ে তৈরি করা হয়েছে এসব গহনা। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ডিজাইনের গহনায় রয়েছে আভিজাত্যের ছোঁয়া। তবে দাম সাধ্যের মধ্যেই। এবারের মেলায় তুরস্ক, ভারত, ইরান, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, নেপালি প্রতিষ্ঠানগুলো নানা ধরনের গহনা নিয়ে এসেছে।

মেলায় প্রতিবারের মতো ‘ঝুমকা ফ্যাশন জুয়েলারি’ এবারও নিয়ে এসেছে নানারকমের গহনা। তাদের বেশিরভাগ গহনা এন্টিক মেটালের তৈরি। গলা ও কানের জন্য মেটালের তৈরি গহনার চাহিদাই বেশি। ৪৭নং স্টলে গিয়ে যা পাওয়া যাবে ২৫০ থেকে ৯০০ টাকার মধ্যে। তা ছাড়া শাড়ির সঙ্গে পরার জন্য হালকা ডিজাইনের লম্বা গলার হার রয়েছে নতুন পণ্য হিসেবে। পাওয়া যাবে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকার মধ্যে। ৫১ ও ৫২নং স্টলে রয়েছে ‘কেজেড’। তাদের গহনাও দৃষ্টি কেড়েছে ক্রেতাদের। নিজস্ব ডিজাইনে তৈরি কেজেডের গহনা পাওয়া যাবে সাধ্যের মধ্যেই। এন্টিক মেটালের ওপর পাথর বসানো গহনাগুলো পাওয়া যাবে বিভিন্ন দামে। তাদের কানের দুলের দাম পড়বে ২০০ থেকে ৮০০ টাকার মধ্যে। নতুন ডিজাইনের হাতঘড়ি, ব্রেসলেট রয়েছে ৫৫০ থেকে ১২০০ টাকার ভেতর।

ইতালিয়ান রেড অ্যাপেল ফ্যাশন জুয়েলারির স্টলে পাওয়া যাচ্ছে ইতালির গহনা। দামি পাথর দিয়ে তৈরি কানের দুল ও গলার হারের চাহিদাই বেশি। বিভিন্ন ডিজাইনের হার এবং দুল পাওয়া যাবে ৩০০ থেকে আড়াই হাজার টাকার মধ্যে। বিদেশি ছাড়াও দেশি গহনা রেখেছে এই স্টলে। পাহাড়িদের ঐতিহ্যবাহী পুতির গহনাগুলো পাওয়া যাবে ৫০০ থেকে দেড় হাজার টাকার মধ্যে।

মেলার ২৩৪নং স্টলে রয়েছে ‘লিলি চায়না ফ্যাশন জুয়েলারি’। চায়না গহনা কিনতে চাইলে যেতে হবে এই স্টলে। হেয়ার চেইন নামে নতুন ডিজাইনের এক ধরনের চেইন এনেছেন তারা, যা হিজাবের সঙ্গেও পরা যাবে। এগুলোর দাম পড়বে ৫০০ থেকে ৭০০ টাকার মধ্যে। দোকানের বিক্রেতা আবুল খায়ের আমাদের সময়কে বলেন, নতুন আমদানিকৃত হেয়ার চেইনের চাহিদা বেশ ভালো। দাম বেশি না হওয়ায় অনেকেই তা কিনছেন।

 

"

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে