অটিজম শিশুদের বিকাশ কেন্দ্র

ইপনা এখন ইনস্টিটিউট

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৫ নভেম্বর ২০১৭, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অটিজমের শিকার শিশুদের চিকিৎসা, শিক্ষা, বিকাশ ও গবেষণামূলক প্রকল্প এস্টাবলিশমেন্ট অব ইনস্টিটিউট অব প্যাডিয়াট্রিক নিউরো-ডিসঅর্ডার অ্যান্ড অটিজম (ইপনা) এবার ইনস্টিটিউট হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। গতকাল সকালে ডা. মিল্টন হলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ৬৮তম সিন্ডিকেট সভায় বিষয়টি অনুমোদন দেওয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার মজুমদার এ তথ্য জানান। তিনি আরও জানান, সিন্ডিকেট সভায় এস্টাবলিশমেন্ট এ সেন্টার ফর অ্যাডভান্সড বায়োমেডিক্যাল রিসার্চের জন্য প্রণীত নীতিমালা এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত বিভিন্ন পর্যায়ের ৩০ কর্মকর্তা ও চার কর্মচারীর পদোন্নতির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সংসদ সদস্য ডা. মো. মোজাম্মেল হোসেন, সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজী, সংসদ সদস্য মো. মাহবুব আলী, অতিরিক্ত সচিব সরদার আবুল কালাম, যুগ্ম সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান, বিএসএমএমইউর সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক মো. নজরুল ইসলাম, উপউপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, উপউপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, উপউপাচার্য অধ্যাপক ডা. এএসএম জাকারিয়া স্বপন ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়লসহ সিন্ডিকেট সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সদিচ্ছা ও তার মেয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অটিজম বিশেষজ্ঞ ও অটিজম চ্যাম্পিয়ন সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সহযোগিতায় অটিস্টিক শিশুদের জন্য প্রতিষ্ঠিত হয় ইপনা। এতে রয়েছে বহির্বিভাগ ও অন্তঃবিভাগ চিকিৎসা সুবিধা, অটিস্টিক শিশুদের বাবা-মাসহ সংশ্লিষ্টদের জন্য প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, শিক্ষাদানের জন্য রয়েছে স্কুলিং ও অটিজম নিয়ে গবেষণার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা। এ ছাড়া এখান থেকে নতুন করে চালু করা হয়েছে হোমভিজিট ও চিকিৎসা সুবিধা। তবে ইপনাকে ইনস্টিটিউট হিসেবে অনুমোদন দেওয়ায় অটিস্টিক শিশুদের উন্নয়ন ও বিকাশে আরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে