নারায়ণগঞ্জে এসএসসির ফরম পূরণ

ফি ১৫৬৫, আদায় ৪৮০০ টাকা

প্রকাশ | ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট: ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ০০:১৪

আবদুস সালাম, নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জ শহরের বেশ কয়েকটি স্কুলে এসএসসির ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, শহরের মরগ্যান গার্লস হাইস্কুলে নেওয়া হচ্ছে ৪ হাজার ৮০০ টাকা, জয়গোবিন্দ হাইস্কুলে ৩ হাজার ৩৭৫ টাকা, গণবিদ্যা নিকেতনে ২ হাজার ৮৭৫ টাকা, বার একাডেমি হাইস্কুলে ৩ হাজার ৬০০ টাকা, হাবার্ড একাডেমিতে ১০ হাজার টাকা, শেয়ারচর উচ্চ বিদ্যালয় ও বন্দর গার্লস স্কুলে ৭ হাজার টাকা, লক্ষ্মী নারায়ণ কটন মিলস হাইস্কুলে ৪ হাজার টাকা এবং বিবি মরিয়ম গার্লস হাইস্কুলে ৩ হাজার ৮০০ টাকা নেওয়া হচ্ছে। সরকার নির্ধারিত ফি হচ্ছে বিজ্ঞান বিভাগে ১ হাজার ৫৬৫ টাকা এবং বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগের জন্য ১ হাজার ৪৭৫ টাকা করে। মরগ্যান গার্লস হাইস্কুলে অধ্যয়নরত এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক হাসিনা বেগম অভিযোগ করেন, তার মেয়ের বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসির ফরম পূরণের জন্য ৪ হাজার ৮০০ টাকা পরিশোধ করতে হয়েছে। অথচ বোর্ড নির্ধারিত ফি মাত্র ১ হাজার ৫৬৫ টাকা। একই অভিযোগ করেছেন জয়গোবিন্দ হাইস্কুলের অভিভাবক এবং গার্মেন্টস শ্রমিক আবদুল জব্বার। তিনি জানান, তার কাছ থেকে স্কুল কর্তৃপক্ষ ৩ হাজার ৩৭৫ টাকা ফরম পূরণ বাবদ আদায় করেছে। মরগ্যান গার্লস হাইস্কুলের পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান ও নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন জানান, বোর্ডের নির্ধারিত ফির সঙ্গে স্কুলের বেতন এবং অতিরিক্ত পরীক্ষা নেওয়ার জন্য ফি নেওয়া হচ্ছে। এ জন্য টাকার পরিমাণ বেশি। বিবি মরিয়ম হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক সাইফুল আলম খান জানান, স্কুল পরিচালনা পরিষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের জন্য টাকা নেওয়া হচ্ছে।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ কমল কান্তি সাহা জানান, তার প্রতিষ্ঠানে সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১ হাজার ৫৬৫ টাকা এবং বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগের জন্য ১ হাজার ৪৭৫ টাকা নেওয়া হচ্ছে। কোনো অতিরিক্ত টাকা আদায় করা হচ্ছে না।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) রেজাউল বারী জানিয়েছেন, এসএসসির ফরম পূরণে বোর্ড নির্ধারিত ফির অতিরিক্ত ফি আদায় করা হলে তা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শরিফুল ইসলামকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ প্রমাণিত হলে সে স্কুলের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।