শেয়ারবাজার কড়চা

  অনলাইন ডেস্ক

২৩ নভেম্বর ২০১৭, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত কয়েকটি প্রতিষ্ঠান শেয়ারপ্রতি আয় ও সম্পদমূল্যের

পাশাপাশি কিছু কোম্পানি মূল্য সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশ করেছে।

নিচে পাঠকের উদ্দেশে তা তুলে ধরা হলোÑ

ওরিয়ন ফার্মা

ওরিয়ন ফার্মা লিমিটেড প্রথম প্রান্তিকের (জুলাই-সেপ্টেম্বর) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ওই সময়ে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ১০ পয়সা। যা গত বছর একই সময়ে ছিল ১ টাকা ১৭ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ শেষে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ৭২ টাকা ০৫ পয়সা।

সেন্ট্রাল ফার্মা

সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। কোম্পানির ইপিএস ১৪ পয়সা। যা গত বছর একই সময়ে ছিল ১৩ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ শেষে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৬ টাকা ৯৩ পয়সা।

এএফসি অ্যাগ্রো

এএফসি অ্যাগ্রো বায়োটেক লিমিটেড প্রথম প্রান্তিকের (জুলাই-সেপ্টেম্বর) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ওই সময়ে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৮৫ পয়সা। যা গত বছর একই সময়ে ছিল ৮২ পয়সা। তবে কোম্পানিটির রিস্টেটেড ইপিএস হয়েছে ৭১ পয়সা। যা গতবছর ছিল ৬৯ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ শেষে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৮ টাকা ৩২ পয়সা।

আরএসআরএম

রতনপুর স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড (আরএসআরএম) প্রথম প্রান্তিকের (জুলাই-সেপ্টেম্বর) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ১৫ পয়সা। যা গত বছর একই সময়ে ছিল ১ টাকা ১১ পয়সা। তবে কোম্পানিটির রিস্টেটেড ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৮৩ পয়সা। যা গতবছর ছিল ৯৫ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ শেষে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ৪৬ টাকা ২৪ পয়সা।

আমরা নেটওয়ার্ক

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি আমরা নেটওয়ার্ক আধুনিক প্রযুক্তির ডাটা সেন্টার চালু করেছে। ইতোমধ্যে এ ডাটা সেন্টারের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রাজধানীর বনানীতে ‘স্টেট অব দ্য আর্ট’ নামের এই ডাটা সেন্টারটি চালু করা হয়েছে। জানা গেছে, এই ডাটা সেন্টারটিতে উন্নত বৈশিষ্ট্যের সার্ভার অবকাঠামো, মাল্টি-জোন ফায়ার সুরক্ষা, এন্টারপ্রাইজ ক্লাস সরঞ্জাম এবং অপ্রয়োজনীয় বিচ্ছিন্ন পাথ আর্কিটেকচার রয়েছে।

আইপিডিসি

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের কোম্পানি আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের ১০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন ইস্যু করবে। ইতোমধ্যে কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের ১৬৬তম সভায় বন্ড অনুমোদনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। জানা গেছে, বন্ডটির নাম হবে নন-কনভার্টেবল আনসিকিউর্ড কুপন বিয়ারিং সাব-অর্ডিনেটেড বন্ড। এর মেয়াদ হবে ৬ বছর। আর সুদের হার হবে ফ্লটিং। এই বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে কোম্পানিটি অর্থ উত্তোলন করে টায়ার টু ক্যাপিটালের শর্ত পূরণ করবে। তবে প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশ ব্যাংক এবং বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) অনুমোদন সাপেক্ষে এই বন্ড ইস্যু করতে পারবে।

লংকাবাংলা আল-আরাফাহ শরিয়াহ ইউনিট ফান্ড

লংকাবাংলা আল-আরাফাহ শরিয়াহ ইউনিট ফান্ডের প্রসপেক্টাস অনুমোদন করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। জানা গেছে, মিউচ্যুয়াল ফান্ডটির লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৫০ কোটি টাকা। ফান্ডটির উদ্যোক্তার অংশ ১০ কোটি টাকা। প্লেসমেন্টের মাধ্যমে ১৬ কোটি টাকা ইতোমধ্যে উত্তোলন করা হয়েছে। বাকি ২৪ কোটি টাকা সব বিনিয়োগকারীর জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে, যা ইউনিট বিক্রির মাধ্যমে তোলা হবে। ফান্ডের প্রতি ইউনিটের অভিহিত মূল্য হবে ১০ টাকা। ফান্ডটির উদ্যোক্তা আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড এমপ্লয়িজ গ্রাচ্যুইটি ফান্ড। ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপক লংকাবাংলা অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট। আর ট্রাস্টি ও কাস্টডিয়ান হিসেবে কাজ করছে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি)।

সামিট অ্যালায়েন্স

বস্ত্র খাতের কোম্পানি সামিট অ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেডের পরিচালক সৈয়দ আলী জওহর রিজভি শেয়ার ক্রয়ের ঘোষণা দিয়েছেন। জানা গেছে, কোম্পানির অন্যতম এ পরিচালক ৭ লাখ ৩০ হাজার শেয়ার কিনবেন। আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বর্তমান বাজার দরে ওই পরিমাণ শেয়ার কিনতে পারবেন তিনি। এ ক্যাটাগরির কোম্পানিটি ২০০৮ সালে পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত হয়। বর্তমানে কোম্পানির উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে ৫৮ দশমিক ৬৭ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

পেনিনসুলা চিটাগাং লিমিটেড

ভ্রমণ ও আবাসন খাতের কোম্পানি পেনিনসুলা চিটাগং লিমিটেডের উদ্যোক্তা মোশাররফ হোসেন শেয়ার কেনার ঘোষণা দিয়েছে। জানা গেছে, কোম্পানির অন্যতম এই উদ্যোক্তা ২ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার কিনবেন। আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে তিনি শেয়ার কেনা শেষ করবেন বলে জানিয়েছেন।

বর্তমানে কোম্পানির উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে ৩৮ দশমিক ৪৯ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। এ ছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১৫ দশমিক ১৪ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে দশমিক ৩৫ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৪৬ দশমিক ০২ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে