জনবিস্ফোরণেই নিরপেক্ষ সরকারের দাবি আদায় হবে-ব্যারিস্টার মওদুদ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, দেশে এখন চলছে মিথ্যাচারের রাজনীতি। নীতিবহির্ভূত অনৈতিকতার রাজনীতি। কে কত বেশি মিথ্যা কথা বলতে পারে, তার প্রতিযোগিতা চলছে। গতকাল শুক্রবার বিকালে এক আলোচনাসভায় এ মন্তব্য করেন তিনি। মওদুদ আহমদ বলেন, এই সরকার বিরোধী দলের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ সমঝোতায় বিশ্বাস করে না। এজন্য আন্দোন ছাড়া অন্য কোনো বিকল্প নেই। তাদের বাধ্য করতে হবে দেশে একটি নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী নির্বাচন অনুষ্ঠান করার জন্য। এজন্য আমাদের নির্বাচন এবং আন্দোলনের প্রস্তুতি একসঙ্গে চলবে। জনবিস্ফোরণের মাধ্যমেই আমাদের দাবি পূরণ হবে।

জাতীয় প্রেসক্লাবে জিয়া সাংস্কৃতিক সংগঠনের (জিসাস) উদ্যোগে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘নতুন তারা’ শিশু-কিশোর সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার আলোচনাসভা হয়। অর্ধশতাধিক শিশু-কিশোর অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণে চিত্রাঙ্গন প্রতিযোগিতায় অংশ নেন।

সংগঠনের সভাপতি আবুল হাশেম রানার সভাপতিত্বে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম, দীপেন দেওয়ান ছাড়াও এলিজা জামান, রোকেয়া সুলতানা কেয়া প্রমুখ।

দেশ আজ মিথ্যাচারে ভরে গেছেÑ মন্তব্য করে মওদুদ আহমদ বলেন, দুঃখের সঙ্গে বলতে হয়, এখন চলছে মিথ্যাচারের রাজনীতি। নীতিবহির্ভূত অনৈতিকতার রাজনীতি। কে কত বেশি মিথ্যা কথা বলতে পারে, তার প্রতিযোগিতা চলছে। মন্ত্রীদের মধ্যে কে কত মিথ্যা বলতে পারেন এর প্রতিযোগিতা চলছে এখন। একদিন না একদিন এই মিথ্যাচারের মূল্য তাদের দিতে হবে।

মওদুদ আহমদ বলেন, নির্বাচন যদি অবাধ ও সুষ্ঠু হয় তাহলে আপনারা (সরকার) জানেন, তার ফল কী হবে। এই ভয়ে আপনারা নির্বাচন দিতে চান না। একটিমাত্র কারণে, তারা জানেন বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হবেন জনগণের আদালতে।

বিরোধী দলকে কীভাবে নিচিহ্ন করতে হবে, এ কাজে সরকার বেশি নিয়োজিত উল্লেখ করে তিনি বলেন, পুলিশ-র্যাবকে ট্রেনিং দেওয়া হয় কী করে বিরোধী দলকে ঘায়েল ও নিশ্চিহ্ন করা যায়।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে