১৫ শতাংশ লভ্যাংশ দেবে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

২০১৭ সালের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের সাড়ে ৭ শতাংশ নগদ ও সমপরিমাণ বোনাস শেয়ার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেডের (এলবিএফএল) পরিচালনা পর্ষদ। ৩১ ডিসেম্বরে সমাপ্ত হিসাব বছরে ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানটির সম্মিলিত করপরবর্তী মুনাফা ১৪২ শতাংশ বেড়ে ১৯২ কোটি ৬৩ লাখ টাকায় উন্নীত হয়েছে, যা আগের বছর ছিল ৭৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। বিগত বছরের সমন্বিত শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ২ টাকা ৫০ পয়সার বিপরীতে এ বছর সমন্বিত শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) দাঁড়িয়েছে ৫ টাকা ৯৭ পয়সা।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বরে এলবিএফএলের শেয়ারপ্রতি সমন্বিত নিট স¤পত্তির পরিমাণ ছিল ২৬ টাকা ১৬ পয়সা, যা ২০১৬ সালের একই সময়ের ২১ টাকা ১ পয়সার তুলনায় ২৫ শতাংশ বেশি। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পরিচালনা পর্ষদের ১০৯তম সভায় লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের সর্বশেষ নিরীক্ষিত আর্থিক বিবরণী অনুমোদন হয়।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ২০১৭ সালে দেশের আর্থিক খাত নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে গেলেও দক্ষ কর্মী বাহিনীর সর্বোত্তম গ্রাহকসেবায় লংকাবাংলা ব্যবসার প্রতিটি খাতেই উল্লেখযোগ্য উন্নতি করেছে। পুঁজিবাজারে ঋণাত্মক ইকুইটির ধাক্কা কাটিয়ে এ সময়ে মুনাফা দেখিয়েছে প্রতিষ্ঠানের মার্চেন্ট ব্যাংকিং সাবসিডিয়ারি লংকাবাংলা ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড। আবার ব্রোকারেজ সেবার বাজারে এক নম্বর অবস্থান ধরে রেখেছে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ লিমিটেড। সম্পদ ব্যবস্থাপনার ব্যবসায় এগিয়ে যাচ্ছে লংকাবাংলা অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড। গত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এলবিএফএলের মোট আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ১৫৫ কোটি টাকা, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ২৯ শতাংশ বেশি। ২০১৭ সালে আর্থিক খাতের আমানতের প্রবৃদ্ধির হার ছিল ২০ শতাংশ; সেই তুলনায় এলবিএফএলের আমানতের প্রবৃদ্ধি আর্থিক খাতের গড় প্রবৃদ্ধির চেয়ে ৯ শতাংশ বেশি। এ সময়ে প্রতিষ্ঠানটির আমানত হিসাবের সংখ্যা দাঁড়ায় ২৩ হাজার ৬৬৯টি, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় (১৪ হাজার ২৮২টি) ৬৬ শতাংশ বেশি। ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এলবিএফএলের মোট ঋণের পরিমাণ ৬ হাজার ১৯১ কোটিতে উত্তীর্ণ হয় এবং ৩২ শতাংশ বার্ষিক প্রবৃদ্ধি অর্জন করে। এ সময়ে আর্থিক খাতে ঋণের গড় প্রবৃদ্ধি ছিল মাত্র ২০ শতাংশ।

অন্যদিকে ২০১৭ সালের শেষে লংকাবাংলার পরিচালনা পর্ষদের অধীনে সমন্বিত মোট তহবিলের পরিমাণ দাঁড়ায় ১৫ হাজার ২১৬ কোটি টাকা, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩৬ শতাংশ বেশি।

বার্ষিক ফলে সন্তোষ প্রকাশ করে লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খাজা শাহরিয়ার বলেন, লংকাবাংলার ২০১৭ সালের আর্থিক সূচকগুলো বিগত কয়েক বছরের কৌশলগত পদক্ষেপসমূহ এবং অবকাঠামোগত পুনর্গঠনের প্রতিফলন। আমাদের প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো একটি দক্ষ রূপ লাভ করেছে। বরাবরের মতোই আমরা মেধাবী কর্মীদের কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছি।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
close