পল্টনে জুসের টান

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ জুন ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রাজধানীর পুরানা পল্টনে ইফতারের সময় জুসের কদর বেশি। মাংসের উপকরণ, হালিম, বিরিয়ানি, হরেক রকমের কাবাব, ফাস্টফুডও চলে বেশ। ওই এলাকায় ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে কর্মজীবী ও ভাসমান লোকজনই বেশি। আছে কিছু আবাসিক এলাকাও। তাদের মধ্যে ভাসমান মানুষের কাছে ফলের জুসের চাহিদাই বেশি। অনেকেই চলতিপথে এক গ্লাস জুস দিয়ে সারেন ইফতার।

পল্টন মোড় থেকে প্রেসক্লাব, বিজয়নগর, বায়তুল মোকাররমÑ এ তিন দিকেই রয়েছে নানা ধরনের রেস্টুরেন্ট, ফাস্টফুড ও ভাসমান ইফতারির দোকান। এগুলোয় সব ধরনের খাবারই পাওয়া যায়। তবে পল্টন মোড়, প্রেসক্লাব, বায়তুল মোকাররম এলাকার খাবার দোকানের মধ্যে ফাস্টফুডই বেশি। এগুলোয় আম, জাম, লিচু, কাঁঠাল, আপেল, কমলার জুস বিক্রি করা হয়। ঠা-া ও নরমালÑ দুভাবেই পাওয়া যায় এগুলো। আমের জুস ৬০, জাম ৭০, কাঁঠাল ৮০, আপেল ১০০ ও কমলার জুস ১০০ টাকা গ্লাস বিক্রি হয়। প্রেসক্লাবের সামনে কয়েকটি রেস্টুরেন্টে পেস্তা বাদামের শরবতও পাওয়া যায়। প্রতি গ্লাস ৯০ টাকা।

পল্টন জুস বারের ম্যানেজার সাফায়েত আহমেদ বলেন, ইফতারের সময় হয়ে গেলে রোজাদাররা অনেকেই বসার জায়গা পান না। তখন তারা এক গ্লাস জুস ও কিছু ফাস্টফুড দিয়েই ইফতার সারেন। জুস পুষ্টিকর বলে এতে রোজাদারদের শক্তি জোগায়।

পল্টন এলাকায় আকর্ষণীয় ইফতারি তৈরি করে ধানসিঁড়ি রেস্টুরেন্ট। এখানে পিঁয়াজু, জিলাপি, মাংসের কাবাব, চিকেন চাপ, গরুর চাপ, সবজি উপাদেয় খারার, মাছের কাবাবসহ সব ধরনের খাবার পাওয়া যায়। রেস্টুরেন্টের ভেতরে প্রায় প্রতিদিনই আয়োজন করা হয় ইফতার পার্টির। প্যাকেজে ইফতার করার সুযোগও রয়েছে। প্রতি প্লেট ইফতারির মূল্য ২২০ টাকা। এর সঙ্গে অতিরিক্ত কিছু নিলে আলাদা মূল্য দিতে হয়।

ওই রেস্টুরেন্টের কর্মী ইফতেখার আহমেদ বলেন, ইফতারের সময় বেশি ভিড় হয়। তখন ইফতারির পাশাপাশি অনেকে ভারী খাবারও খেয়ে নেন। এর মধ্যে বেশি চলে নান ও কাবাব।

পল্টন মোড়ে রয়েছে খ্যাতিমান অলিম্পিয়া বেকারির একটি শাখা। এখানে ইফতারের সময় বিশেষ জিলাপি, শিঙ্গারা, সমুচা, মাংসের পরটাসহ নানা পদের খাবার তৈরি করা হয়। ওইসব খাবারের জন্য ক্রেতাদের লাইন পড়ে যায়। জিলাপি ২৬০ টাকা কেজি ও চিকেন পরটা প্রতি পিস ৪০ টাকায় বিক্রি করা হয়।

ওই এলাকায় মরণচাঁদ ও মুসলিম সুইটসের মিষ্টি, রসমালাই, নিমকি ও দই ইফতারের সময় বেশ ভালো চলে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে