ঈশ^রগঞ্জে ভিজিএফের ৫২০ বস্তা চাল জব্দ ইউপি সদস্য আটক

  ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধি

১৬ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে গত দুই দিনে পৃথক অভিযানে চার ইউনিয়ন থেকে ভিজিএফের জন্য বরাদ্দ করা ৫২০ বস্তা চাল জব্দ করেছে প্রশাসন। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে এক ইউপি সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

ঈশ^রগঞ্জের ১১টি ইউনিয়নে ঈদ উপলক্ষে ৬৮ হাজার ৯৬৭ জন দুস্থের জন্য মাথাপিছু ২০ কেজি করে চাল বরাদ্দ দেয় সরকার। এ চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ পেয়ে গত সোমবার দুপুরে উপজেলার বড়হিত ইউনিয়নের নওশুতি বাজারে অভিযান চালান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এলিশ শরমিন। এ সময় দুটি দোকানের তালা ভেঙে ২৩ বস্তা ভিজিএফের চাল জব্দ করেন তিনি। একইদিন রাজিবপুর ইউনিয়নের শাহগঞ্জ বাজারের দুটি দোকান থেকে ২৩৭ বস্তা চাল জব্দ করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মইনউদ্দিন খন্দকার। ওই দিন বিকালে তারুন্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদের পেছনের একটি ঘরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিশ শরমিন অভিযান চালিয়ে ৩০ বস্তা চাল জব্দ করেন।

এদিকে গত মঙ্গলবার রাতে সোহাগী ইউনিয়নের সোহাগী বাজারে অভিযানে যান উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মইনউদ্দিন খন্দকার। ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফজলুল হকের দোকান থেকে ১১৫ বস্তা, মোস্তাফিজুর রহমানের ফার্নিচারের দোকান থেকে ৩৩ বস্তা, সরিষা ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আবদুল

হেলিমের দোকান থেকে ৩২ বস্তা, সবুজ মিয়ার দোকান থেকে ৩০ বস্তা এবং কুবেদ মিয়ার চিড়ার মিল থেকে ২০ বস্তাসহ মোট ২৩০ বস্তা চাল জব্দ করা হয়। সোমবার ও মঙ্গলবার চার ইউনিয়নে পৃথক অভিযানে প্রশাসন মোট ৫২০ বস্তা চাল জব্দ করে।

ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে রাজিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ওয়াহেদ উদ্দিনকে আটক করা হয়।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ভিজিএফের জন্য বরাদ্দের চালগুলো উদ্ধার করে সিলগালা করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আহম্মেদ কবীর হোসেন বলেন, ঘটনায় সম্পৃক্ত সন্দেহে ইউপি সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। অন্য এলাকায় চাল উদ্ধারের ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে