উচ্চারণ ভুল করায় শিক্ষকের পিটুনিতে ছাত্র হাসপাতালে

  মাগুরা প্রতিনিধি

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সময় ভুল উচ্চারণ করায় মাগুরা সরকারি বালক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির এক অসুস্থ ছাত্রকে পিটিয়ে আহত করেছেন ওই বিদ্যলয়ের শিক্ষক মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী। যায়েদ বিন জামান নামে ওই ছাত্র বর্তমানে মাগুরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ছাত্রের বাবা মাগুরা শহরের আদর্শপাড়ার বাসিন্দা মুন্সী কায়েমুজ্জামান বলেন, আমার ছেলে দীর্ঘদিন ধরে টিস্যুজনিত দুর্বলতায় আক্রান্ত। এ কারণে তাকে নিয়মিত ফিজিওথেরাপি দিতে হয়। এ জন্য আমি এ বছরের জুলাইয়ে লিখিত দরখাস্তের মাধ্যমে আমার সন্তানকে কোনো কারণে মারপিট করা থেকে বিরত থাকার আবেদন জানিয়ে ছিলাম। কিন্তু গত মঙ্গলবার ওই স্কুলের

শিক্ষক মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী তার প্রশ্নের যথাযথ উত্তর দিতে না পারায় আমার ছেলেকে নির্দয়ভাবে মারপিট করেন। ছেলে মারপিটের বিষয়টি আমাদের কাছে গোপন রাখে। কিন্তু রাতে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে বিষয়টি বুঝতে পেরে দ্রুত মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করি।

মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি ছাত্র যায়েদ বিন জামান বলে, আমি স্যারের মারপিট থেকে বাঁচার জন্য পা জড়িয়ে ধরলেও তিনি আরও মারতে থাকেন। এ সময় তিনি বলেন আমি কখন হাসি, কখন রাগি, কখন কারে খুন করে দিতে ইচ্ছা করে তা ওপর ওয়ালাও জানে না।

মাগুরা সরকারি বালক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জিয়াউল হাসান বলেন, ছাত্রের পরিবারের পক্ষ থেকে আমার কাছে কোনো অভিযোগ দেওয়া হয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেব।

এ ব্যাপারে মাগুরা জেলা প্রশাসক আতিকুর রহমান জানান, আহত ছাত্রের বাবার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারুক আহমেদকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী বলেন, ওই ছাত্রের কথাবার্তা আমার কাছে ব্যঙ্গাত্মক মনে হয়েছিল। এ কারণে তাকে শাসন করেছি। তবে সে যে গুরুতর অসুস্থ তা আমার জানা ছিল না। এ কারণে আমি দুঃখিত। আমি তাকে হাসপাতালে দেখে এসেছি।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে