ভেজাল ও নকল ওষুধে সয়লাব সখীপুর

  ফজলুল হক বাপপা, সখীপুর

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলায় অবাধে বিক্রি হচ্ছে ভেজাল, নকল, অনুমোদনহীন ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ। সখীপুর পৌরসভা থেকে শুরু করে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে গড়ে ওঠেছে লাইসেন্সবিহীন হাজারো ওষুধের দোকান। ওইসব দোকানে আসা রোগীদের নকল ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির একাধিক অভিযোগ রয়েছে। ওইসব ওষুধের মধ্যে রয়েছে অনুমোদনহীন বিভিন্ন বেনামি কোম্পানির যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট, সিরাপ, ব্যথানাশক ট্যাবলেট, ক্যাপসুল, বলবর্ধক ট্যাবলেট ও সিরাপ। এ ছাড়া ডিআর (ড্রাগ রেজিস্ট্রেশন) নম্বরবিহীন কৌটাজাত বিভিন্ন ধরনের খাদ্য সম্পূরক (ফুসাপ্লিমেন্ট) ওষুধ দেদার বিক্রি করা হচ্ছে। বুঝে না বুঝে এসব ওষুধ খেয়ে মানুষ নানা জটিল রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। অনেকের আবার কিডনি, লিভার নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। কেউ যৌন ক্ষমতা হারাচ্ছেন চিরদিনের জন্য। দেখেও না দেখার ভান করে নীরব ভূমিকা পালন করছে প্রশাসন।

সখীপুর পৌরশহর ও উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে একাধিক ওষুধ কোম্পানির (রিপেজেনটিভ) সরবরাহকারীরা জানান, তারা সখীপুর পৌর শহর, কালিদাস, কচুয়া, কালিয়া, বড়চওনা, বেড়বাড়ী, নাকশালা, দাড়িয়াপুর, বেড়বাড়ী ইয়ারফোর্স, রতনপুর, দেওদীঘি, কুতুবপুর, তক্তারচালা, কীর্ত্তণখোলা, গড়বাড়ি, ইন্দারজানি, বাঘেরবাড়ি, মহানন্দপুর, শালগ্রামপুর, বহেড়াতৈল, কালিয়ান, আড়াইপাড়াবাজারসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কয়েক হাজার অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ওষুধের দোকানে যৌন উত্তেজক, ব্যথানাশক, বলবর্ধক এবং মোটা থেকে চিকন ও চিকন থেকে মোটা হওয়ার ওষুধ সরবরাহ করে থাকেন। এর বেশিরভাগ ওষুধ চোরাইপথে ভারত, চীন ও মিয়ানমার থেকে আসে বলেও তারা জানান। তারা আরও জানান, এ উপজেলায় আরও ১৫ থেকে ২০ জন সেনেগ্রা, বিগোরিন, মনিষ, ইডিগ্রা, নকল ভায়াগ্রা, সিটিরিজিন, বিজিফক্স সিরাপ ও নিমোসুলাইডসহ বিভিন্ন অনুমোদনহীন ওষুধ সরবরাহকারী রয়েছেন।

বড়চওনা বাজারের এক ওষুধ ব্যবসায়ী বেশ কিছু বিভিন্ন নামের যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট দেখিয়ে বলেন, এর প্রতিটি ট্যাবলেট পাঁচ টাকায় কিনে ১০০ থেকে ১৫০ টাকায় বিক্রি করি। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. রাফিউল করিম খান বলেন, ভেজাল, নকল, অনুমোদনহীন ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ প্রকাশ্যে বিক্রির বিষয়টি আমার জানা নেই। ওইসব অনুমোদনহীন ওষুধ কেউ দীর্ঘদিন সেবন করলে তার রক্তচাপ বেড়ে যাবে, হৃদরোগ ও কিডনিও বিকল হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আবার কেউ চিরদিনের জন্য তার যৌন ক্ষমতাও হারাতে পারে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
close