কুমিল্লায় কলেজছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা

গোপালগঞ্জে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে খুন

  নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা ও গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

১৩ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কুমিল্লার ধর্মসাগরপারে সিহাব উদ্দিন অন্তু (১৮) নামে এক কলেজছাত্রকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গত মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। অন্তু জেলার বুড়িচং উপজেলার ইছাপুরা গ্রামের হুমায়ন কবিরের ছেলে এবং অজিত গুহ কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। তার মা শিরিন আক্তার কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স। নগরের রেইসকোর্স এলাকায় তারা ভাড়া বাসায় থাকেন। অন্তু স্থানীয় একটি ব্যান্ড দলের ভোকালিস্ট। কুমিল্লায় সংগীতাঙ্গনেও তার বেশ পরিচিতি ছিল। এদিকে গোপালগঞ্জে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে লিপি বেগম (২৫) নামে এক গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় ওই গৃহবধূর স্বামী ইব্রাহিম শেখ (৩৫) আহত হন। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে কাশিয়ানী উপজেলার মহেশপুর ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের এ ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। স্থানীয়রা জানান, সন্ধ্যায় বাসা থেকে কয়েকজন যুবক অন্তুকে ডেকে ধর্মসাগরপারে নিয়ে যান। সেখানে তাদের মধ্যে বাগ্বিত-ার একপর্যায়ে তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান। এ অবস্থায় উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে কী কারণে অন্তুকে হত্যা করা হয়েছে তা জানা যায়নি। কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. সালাহ উদ্দিন জানান, ঘাতকদের পরিচয় জানা যায়নি। তদন্ত চলছে।

কাশিয়ানী থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান বলেন, ওই সময় একদল দুর্বৃত্ত সিঁধ কেটে ইব্রাহিম শেখের ঘরে ঢুকে তাকে মারপিট শুরু করে। ইব্রাহিমের স্ত্রী লিপি চিৎকার করলে দুর্বৃত্তরা তাকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে পালিয়ে যায়। প্রতিবেশীরা ছুটে এসে ইব্রাহিম ও লিপিকে উদ্ধার করে প্রথমে কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হলে পরে ওই গৃহবধূকে সেখান থেকে ঢাকা নেওয়ার পথে ফেরিতে তিনি মারা যান।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে