মেহেরপুরে নার্সের মরদেহ উদ্ধার

হত্যার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

  মেহেরপুর প্রতিনিধি

১১ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মেহেরপুরের গাংনীতে লিপিয়ারা খাতুন (২৮) নামের এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি কুষ্টিয়া মান্নান হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালের

সিনিয়র স্টাফ নার্স। এ ঘটনায় তার স্বামীর বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ এনেছে নিহতের পরিবার।

লিপিয়ারা গাংনী পৌর এলাকার চৌগাছা গ্রামের মোজাম্মেল হকের মেয়ে। ঘটনার পর লিপিয়ারার স্বামী সামাদুল ইসলাম ও তার পরিবারের লোকজন পালিয়ে গেছেন। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১টার দিকে চেংগাড়া গ্রামের বাসস্ট্যান্ডপাড়া এলাকায় তার স্বামীর ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লিপিয়ারার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

লিপিয়ারার ছোট ভাই আরিফুল ইসলাম বলেন, প্রায় এক বছর আগে লিপিয়ারার সঙ্গে চেংগাড়া গ্রামের ইনামুল ইসলামের ছেলে সামাদুলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য স্ত্রীর ওপর নির্যাতন

করতেন সামাদুল। বোনের সুখের কথা ভেবে ২ লাখ টাকা দেওয়াও

হয় তাকে। শুক্রবার সকালে আমার বোনকে তার স্বামী মোবাইল

ফোনে ডেকে নিয়ে হত্যা করে মরদেহ তার ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে পালিয়ে যায়।

গাংনী থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে