দুই দেওয়ানে বিভক্ত রাঙামাটি বিএনপি

  জিয়াউর রহমান জুয়েল, রাঙামাটি

০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:৩৫ | প্রিন্ট সংস্করণ

‘তারেক রহমান লন্ডন থেকে ফোন করে কেন্দ্রে ডেকে মণিস্বপন দেওয়ানকে প্রার্থী করেছেন’ এমন প্রচারে মাঠ গরম করছেন জেলা বিএনপির মূল নেতৃত্বের একটি অংশ। অন্যদিকে ‘লন্ডন কানেকশনে’র কথা বলে ‘দলছুট’ মণিস্বপনপন্থি বিএনপি নেতারা এ অপপ্রচার চালাচ্ছেন বলে দাবি তুলেছেন দীপেনপন্থি নেতারা। তারা বলছেন, ‘দলের হাইকমান্ড দীপেন দেওয়ানকে চুড়ান্ত মনোনয়ন দিয়েছেন। বিকল্প প্রার্থী হিসেবে ২ নম্বরে মণিস্বপন দেওয়ানকে মনোনয়নপত্র দেওয়া হয়েছে।’

রাঙামাটি আসন থেকে বিএনপির মনোনয়ন পাওয়া অ্যাডভোকেট দীপেন দেওয়ান ও মণিস্বপন দেওয়ানকে ঘিরে বিভক্ত হয়ে পড়েছে জেলা বিএনপি। দুই দেওয়ানকে ঘিরে এই বিভক্তি এখন ছড়িয়ে পড়েছে উপজেলা থেকে গ্রাম পর্যন্ত। তবে কেন্দ্রের দিকেই তাকিয়ে আছেন সাধারণ কর্মী-সমর্থকরা।

‘ম্যাডামকে রাঙামাটি আসনটি উপহার দিতে পারব; এটা শতভাগ নিশ্চিত আমি। তাই দলের মূল প্রার্থী হিসেবে আমাকে মনোনয়নপত্র জমা দিতে চূড়ান্ত করে দেওয়া হয়েছে’, এমন দাবি অ্যাডভোকেট দীপেন দেওয়ানের। জবাবে প্রতিদ্বন্দ্বী মণিস্বপন দেওয়ান বলেন, ‘দলের প্রার্থী হয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি। দল যাকে চূড়ান্ত মনোনয়ন দেবে তার পক্ষে থাকব’।

তবে বিএনপি নেতাদের ‘মিথ্যাচার’ আর ‘অপপ্রচারে’ নেতাকর্মী ও সমর্থকরাও বিভ্রান্তিতে পড়ছেন। নেতারা বলছেন, বিএনপি থেকে এলডিপিতে যাওয়া ‘দলছুট’ মণিস্বপন এখন জনবিচ্ছিন্ন নেতা। তাকে সামনে এনে অপপ্রচার চালিয়ে দলীয় প্রার্থীকে ঠেকানো চেষ্টা করছে একটি পক্ষ। এর মূল উদ্দেশ্য আওয়ামী লীগ প্রার্থীর জয় নিশ্চিত করে দেওয়া।

জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সাবেক মেয়র সাইফুল ইসলাম চৌধুরী ভূট্টো বলেন, দীপেন দেওয়ানই দলের চূড়ান্ত মনোনীত প্রার্থী। দলের কিছু সুবিধাবাদী মণিস্বপনকে নিয়ে প্রপাগান্ডা ছড়াচ্ছেন। তিনি বলেন, ২০০১ সালের নির্বাচনে মণিস্বপন দেওয়ান বিএনপির প্রার্থী হয়ে উপমন্ত্রী হন। কিন্তু মেয়াদ শেষে দল ছেড়ে এলডিপিতে যোগ দেওয়ায় দল তাকে বহিষ্কার করেছিল। তবে এবার তাকে বিকল্প প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিতে বলা হয়েছে।

জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি জহির আহমদ সওদাগর বলেন, দীপেন দেওয়ান সরকারি চাকরিতে ইস্তফা দিয়ে জরুরি অবস্থার সময় এ জেলায় দলের হাল ধরেছেন। হাইকমান্ড তাকে মূল্যায়ন করেছে। জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি মমতাজ মিয়া বলেন, দীপেন দেওয়ান পাহাড়িদের বিএনপিতে এনেছেন।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে