সিলেট নিয়ে স্বপ্ন মোমেনের দল নিয়ে বিপাকে মুক্তাদির

  নুরুল হক শিপু, সিলেট

১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:০৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিলেট-১ আসনে মহাজোটের প্রার্থী ড. একে আবদুল মোমেন সিলেটকে নিয়ে অনেক স্বপ্ন দেখছেন। নির্বাচিত হয়ে বড় ভাই অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের মতোই উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে রেকর্ড গড়তে চান নৌকা প্রতীকের এই প্রার্থী। দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন মোমেন, আর ভোটারদের জানাচ্ছেন তার স্বপ্নের কথা।

অন্যদিকে দল এবং জোটকে নিয়ে বিপাকে আছেন বিএনপি তথা ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির। দলীয় নেতাদের একাংশকে নিয়ে তার প্রচার চললেও সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী এখনো তার হয়ে মাঠে নামেননি। ধানের শীষ নিয়ে মাঠ চষে বেড়ালেও এখনো ঘর গোছাতে পারেননি মুক্তাদির।

গতকাল বুধবার বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগকালে ড. মোমেন বলেন, সিলেটকে তিনি দৃষ্টিনন্দন নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চান। সিলেটকে নিয়ে তার অনেক স্বপ্ন আছে। তিনি বলেন, সব স্বপ্নই পূরণ হবে শেখ হাসিনা আবার ক্ষমতায় এলে। সিলেটের পাশাপাশি মোমেন দেশের জন্যও কাজ করে যেতে চান।

গতকাল দুপুরে সিলেট নগরীর মণিপুরি রাজবাড়ি মণ্ডপে এলাকাবাসীর উদ্যোগে আয়োজিত মতবিনিময়সভায় জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত ড. একে আবদুল মোমেন সিলেটে গ্যাসের সমস্যা রয়েছে উল্লেখ করে বলেন, যারা গ্যাসের জন্য টাকা জমা দিয়েছেন, তাদের গ্যাস দেওয়ার জন্য আমি সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ করেছি। শেখ হাসিনা আবার ক্ষমতায় এলে গ্যাস দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

সাদাকে সাদা, কালোকে কালো বলে সততার সঙ্গে কাজ করতে পারবেন এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করে মোমেন বলেন, দেশ দুর্নীতিতে আর এক নম্বর হতে চায় না। তাই বিজয়ের মাস ডিসেম্বরের ৩০ তারিখ আবারও আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করার জন্য সবার প্রতি আহ্বান রইল।

গতকাল দুপুরে সিলেটের একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির বলেন, আমাদের দলে কোনো বিভেদ নেই। আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ। সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী আমার হয়ে নির্বাচনী প্রচারে মাঠে থাকবেন।

মুক্তাদির আরও বলেন, সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীসহ বিএনপির সব নেতাকর্মী তাদের সর্বস্ব দিয়ে মাঠে নামবেন। তিনি বলেন, দলের প্রার্থিতা চাওয়া একটি সাধারণ ব্যাপার। একাধিক ব্যক্তি মনোনয়ন চাইতেই পারেন; কিন্তু পাবেন একজনই। এখানে একজনের ব্যক্তিগত পছন্দের প্রার্থী থাকতেই পারেন; কিন্তু দল থেকে মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে বিএনপির সব স্তরের নেতাকর্মী ঐক্যবদ্ধ।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে