বাজেটে যা নতুন

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০২ জুন ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ০২ জুন ২০১৭, ১০:০৬ | প্রিন্ট সংস্করণ

নির্বাচন সামনে রেখে জনকল্যাণ ও দেশের আর্থসামাজিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে প্রস্তাবিত বাজেটে নতুন অনেক বিষয় যুক্ত করা হয়েছে। সরকারের চলতি ব্যয় নির্বাহে কোনো ঋণ গ্রহণ করা হবে না বলে জানানো হয়। সরকারি ঋণের সমুদয় অর্থ দেশের উন্নয়নমূলক কর্মকা-ে ব্যয় করা হবে বলেও জানানো হয় বাজেটে। প্রথমবারের মতো তিন বছরমেয়াদি ১৫ শতাংশ হারে কর নেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

বাংলাদেশ ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফাইন্যান্স ফান্ড লিমিটেড ২০১৭ ও ২০১৮ পঞ্জিকা বছরে ২০টি প্রকল্পে ৩ হাজার ৮০৯ কোটি টাকা বিনিয়োগের পরিকল্পনা করেছে।

বাজেট বক্তৃতায় ২০১৬ সালে বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশকে ‘সোলার পাওয়ার’-এর রোল মডেল হিসেবে উল্লেখ করার বিষয়ে বলেন, জ্বালানির চাহিদা মেটাতে সোলার পাওয়ারের কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের অধীনে মানবসম্পদ উন্নয়ন (এনএইচআরডিএফ) তহবিল স্থাপনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে এনএইচআরডিএফের কাজের অগ্রগতিও বাজেটে উল্লেখ করা হয়।

বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদনকালে গবেষণার সুযোগ ও ক্ষেত্র তৈরিতে বাজেটে ২০০ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে।

বাস, রেলওয়ে, নৌযান ও চুক্তিবন্ধ বেসরকারি বাসের জন্য ই-টিকিটিং সিস্টেম চালু করা হবে। জুয়েলারিকে ব্যবসাবান্ধব করতে একটি বাস্তবসম্মত ও যুগোপযোগী স্বর্ণ নীতিমালা প্রণয়ন করার কথা বলা হয়েছে।

‘একটি বাড়ি একটি খামার’ প্রকল্পের আওতায় আগামী ৪ বছরে সারা দেশে ১ লাখ ভিক্ষুক পুনর্বাসনসহ ৩৬ লাখেরও বেশি দরিদ্র পরিবারকে সম্পৃক্ত করে আরও ৬০ হাজার ৫১৫টি গ্রাম উন্নয়ন সমিতি গঠনে সরকারের পরিকল্পনা করা হয়েছে।

দেশে আন্তর্জাতিক মানের ব্যবস্থাপক তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ উদ্দেশ্যে বিশেষ ডিপ্লোমা কোর্স চালু করা হবে। ইতোমধ্যে দুটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও দুটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগিতায় ওই ডিপ্লেধামার পাঠক্রম প্রস্তুত করা হয়েছে।

কর কর্মকর্তাদের কাজে অধিক স্বচ্ছতা আনয়ন, লক্ষ্যমাত্রা পূরণ, করফাঁকি উদ্ঘাটনে কর কর্মকর্তাদের উৎসাহিত করার জন্য পুরস্কার দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে বাজেটে।

পূর্বাচল এলাকায় ৫ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার একটি কনভেনশন সেন্টার হবে। সেই কনভেনশন সেন্টারসংলগ্ন জায়গায়ই ১৪২ তলাবিশিষ্ট আইকনিক টাওয়ার নির্মাণ করা হবে।

প্রস্তাবিত বাজেটে মুক্তিযোদ্ধাদের বছরে দুটি উৎসবভাতা প্রদানের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর ফলে বছরে ২০ হাজার টাকা উৎসবভাতা পাবেন তারা। রাজধানীর যানজট কমাতে এবার শান্তিনগর থেকে ঢাকা-মাওয়া রোড পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার দীর্ঘ ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হবে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে