তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

লক্ষ রাখবে উত্তর যেন যথার্থ হয়

  মো. এনামুল ইসলাম, সিনিয়র শিক্ষক, শের-ই-বাংলা স্কুল, অ্যান্ড কলেজ, মধুবাগ, মগবাজার, ঢাকা

২৭ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে মোট ৫০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। যার মধ্যে ২৫ নম্বরের সংক্ষিপ্ত প্রশ্নের (৮টি প্রশ্ন থেকে ৫টি) উত্তর দিতে হবে। প্রতিটি প্রশ্নের মান ৫ নম্বর। এমসিকিউ পরীক্ষা হবে ২৫ নম্বরের। প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে এবং প্রতিটি

প্রশ্নের মান ১

জেএসসি পরীক্ষার্থীরা হাতে খুব বেশি সময় নেই। পরীক্ষায় ভালো করতে হলে ভালো প্রস্তুতি আবশ্যক। পরীক্ষা অনেক ভালো দিতে হবে। এখন শুধু রিভিশনের পালা। জেএসসি পরীক্ষায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে কেবল পাস নয়, যদি পরিকল্পনামাফিক অধ্যয়ন করা যায় তবে ৫০ নম্বর থেকে ৪০ ঊর্ধ্ব নম্বর পাওয়াও অত্যন্ত সহজ। সঠিক পরিকল্পনার মাধ্যমে বিশেষ কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করলেই সহজে ভালো ফল অর্জন করা সম্ভব। তোমাদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে মোট ৫০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। যার মধ্যে ২৫ নম্বরের সংক্ষিপ্ত প্রশ্নের (৮টি প্রশ্ন থেকে ৫টি) উত্তর দিতে হবে। প্রতিটি প্রশ্নের মান ৫ নম্বর। এমসিকিউ পরীক্ষা হবে ২৫ নম্বরের। প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে এবং প্রতিটি প্রশ্নের মান ১। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে তেমন গাণিতিক অংশ না থাকায় সংক্ষিপ্ত প্রশ্নের উত্তরদানের ক্ষেত্রে লক্ষ রাখতে হবে যেন উত্তরটি যথার্থ হয়। অকারণে বিষয়বহির্ভূত অথবা প্রশ্নের উত্তরের সঙ্গে সম্পর্কিত নয় এমন তথ্য-উপাত্ত লিখবে না। তা হলে পূর্ণ নম্বর পাওয়ার ক্ষেত্রে অন্তরায় হবে। প্রশ্নপত্র হাতে পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মনোযোগ সহকারে ভালো করে পুরো প্রশ্নপত্রটি পড়ে দেখে নেবে কোন কোন প্রশ্নের উত্তর ভালোভাবে লিখতে পারবে। যে প্রশ্নের উত্তরটি তুমি সবচেয়ে ভালোভাবে লিখতে পারবে সেটির উত্তর প্রথমে দেওয়ার চেষ্টা করবে। একবার একটি প্রশ্নের উত্তর লিখে তা কেটে দিয়ে অন্য আরেকটি প্রশ্নের উত্তর দেওয়া থেকে বিরত থাকবে। আগে প্রশ্নগুলো ভালো করে পড়ে নিশ্চিত হয়েই প্রশ্নের উত্তর লিখতে শুরু করবে। কোনো চিত্র (ঋরমঁৎব) আঁকার দরকার হলে, পেন্সিল দিয়ে আঁকবে। গুরুত্বপূর্ণ পরিভাষাগুলোর পূর্ণরূপ লিখবে। এতে বেশি মার্কস পাবে। কোনো বানান ভুল করা যাবে না। তবে পারিভাষিক শব্দগুলো তুমি বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষায় লিখতে পারবে। এমসিকিউ প্রশ্নের সঠিক এবং সব প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য পাঠ্যবইয়ের প্রতিটি লাইন ভালোভাবে পড়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো আন্ডারলাইন করে রাখবে এবং খাতায় বারবার লিখে মনে রাখার চেষ্টা করবে। তা হলে সঠিক উত্তরটি দিতে কোনো অসুবিধা হবে না। টেস্ট পেপার থেকে নমুনা প্রশ্ন দেখে বাসায় নিজে নিজে মূল্যায়ন পরীক্ষা বা মডেল টেস্ট দাও। কোথায় কোথায় দুর্বলতা আছে, টেস্টের সময় শেষ হওয়ার আগেই পুরো নম্বরের উত্তর দিতে পারছ কি-না দেখ। টেস্ট পেপারে যেসব টপিকের প্রশ্ন বেশি বেশি দেখবে, সেগুলোর ওপর বাড়তি নজর দেবে। সর্বোপরি বিষয়টি নিয়ে কোনোভাবেই দুশ্চিন্তা করবে না। সারা বছর যা পড়েছ পরীক্ষার আগে একবার ঝালাই করে নাও।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে