কানিজ আলমাস খান-রূপবিশেষজ্ঞ ও পরিচালক, পারসোনা

  অনলাইন ডেস্ক

১১ ডিসেম্বর ২০১৭, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

এমন একটি আনন্দঘন আয়োজন করার জন্য আমাদের সময়কে ধন্যবাদ। বিউটি আলাদা করে দেখার মতো কোনো বিষয় নয়। এটি লাইফস্টাইলেরই একটি অংশ। একটি শিশু জন্মগ্রহণ করার পর থেকে তার মা তার জন্য কোন তেল, কোন শ্যাম্পু, লোশন ভালো হবে, সে কীভাবে সুন্দর থাকবে তা ভাবতে থাকেন। এটাই বিউটি। শুধু রূপচর্চা বা বাইরের সৌন্দর্যই বিউটি নয়। শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ ও সুন্দর থাকাই সৌন্দর্য, যা আমাদের জীবনযাপনের সঙ্গে জড়িত। আমরা যখন এই সেক্টরটি নিয়ে কাজ শুরু করি তখন এই সেক্টরটি এখনকার মতো ছিল না। শূন্য থেকে শুরু করে আজকে আমরা নারীরা বাংলাদেশে এত বড় একটা বিউটি সেক্টর দাঁড় করিয়েছি। হাজার হাজার মানুষ এখন এ সেক্টরে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। সরকারি যুব উন্নয়ন, ব্যক্তিভিত্তিক উদ্যোগ নানাভাবে আমরা প্রতিনিয়তই দক্ষ কর্মী তৈরি করছি। বিভিন্ন ভ্রান্ত ধারণা বদলে দিয়ে গ্র্যাজুয়েশনসম্পন্ন অসংখ্য নারী এখন বিউটি উদ্যোক্তা, ম্যানেজমেন্ট লেভেলে কাজ করছেন। কাজ করছেন, সংসার চালাচ্ছেন। স্বাবলম্বী হচ্ছেন, হচ্ছেন সচেতন। সম্পূর্ণ নারীদের দ্বারা পরিচালিত এই সেক্টরটি থেকে প্রতিবছর ২০% ভ্যাট, ট্যাক্স পাচ্ছে সরকার। অথচ এ সেক্টরের পেছনে সরকারের সহযোগিতা খুবই কম। তার ওপর আমাদের প্রায়ই করারোপসহ নানাভাবে হেনস্তা করা হয়, যা দুঃখজনক। অথচ একটু সহযোগিতা পেলে বিউটি সেক্টরটি বাংলাদেশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকরা রাখতে পারবে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে