নিধাস কাপেও অভিভাবকহীন বাংলাদেশ

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সাউথ আফ্রিকা সিরিজ চলাকালেই মেইল মারফত বিসিবিতে পদত্যাগপত্র পাঠান চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। নতুন বছরে টাইগারদের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট ত্রিদেশীয় সিরিজে তাই প্রধান কোচ ছাড়াই মাঠে নামতে হয়েছে বাংলাদেশকে। অবশ্য গত মাসে অনুষ্ঠিত ওই সিরিজে দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর করা হয় খালেদ মাহমুদ সুজনকে। টেকনিক্যাল ডিরেক্টর বলা হলেও তিনি মূলত হেড কোচের ভূমিকায়ই ছিলেন।

শ্রীলংকার বিপক্ষে চলমান দ্বিপক্ষীয় সিরিজেও টাইগারদের ‘কোচ’ খালেদ মাহমুদ সুজনই। মার্চে তিন জাতির টুর্নামেন্ট খেলতে শ্রীলংকা সফরে যাবে বাংলাদেশ। স্বাগতিক শ্রীলংকা, বাংলাদেশ ও ভারতকে নিয়ে আয়োজিত ‘নিধাস’ ট্রফিতেও কোচের ভূমিকায় দেখা যেতে পারে খালেদ মাহমুদকেই। কিছুদিন আগে আমাদের সময়কে এমনটাই জানিয়েছিলেন বিসিবি পরিচালক ও সংস্থাটির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। গতকালও তিনি এমনই আভাস দিয়েছেন। অবশ্য সরাসরি খালেদ মাহমুদের নাম বলেননি। জালাল ইউনুস বলেন, ‘শ্রীলংকা সফরে হেড কোচ থাকবে এবং সেটি বর্তমান ম্যানেজমেন্টেরই কেউ।’ তিনি আরও বলেছেন, ‘নিধাস ট্রফির আগে ব্যাটিং কোচ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, তবে তা-ও ক্ষীণ।’

খালেদ মাহমুদ সুজন দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের আড়ালে হেড কোচের ভূমিকা পালন করছেন। তবে তার তত্ত্বাবধানে দল সাফল্য পাচ্ছে না। দেশের মাটিতে বাংলাদেশের পাওয়া সাফল্যর ভাসমান ভেলা ডুবতে বসেছে। ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে শ্রীলংকার কাছে বাজেভাবে হেরেছে দল। টেস্টেও রুগ্ণদশা টাইগারদের। চট্টগ্রামে কোনোরকম প্রথম টেস্ট বাঁচাতে পারলেও ঢাকায় দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে করুণ পরিণতি বরণ করতে হয়েছে মাহমুদউল্লাহ, তামিমদের। টেস্ট সিরিজও জিতে নিয়েছে হাথুরুসিংহের শ্রীলংকা।

ওয়ানডে, টেস্টের পর এবার টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। ক্ষুদ্র ফরম্যাটের জনপ্রিয় এই ভার্সনেও শ্রীলংকার বিরুদ্ধে কঠিন পরীক্ষাই দিতে হবে স্বাগতিকদের। কোচ থাকাকালে হাথুরুসিংহে চাপের মুখে প্রতিপক্ষ দলকে যেভাবে পাল্টা আক্রমণ করতে পারতেন, খালেদ মাহমুদের সময় তা হচ্ছে না। বরং চাপের মুখে দল আরও ভেঙে পড়ছে।

তবে শ্রীলংকায় মার্চে অনুষ্ঠেয় নিধাস ট্রফিতে খালেদ মাহমুদ সুজনকেই দায়িত্ব দেওয়া হবে, নাকি সহকারী কোচ রিচার্ড হ্যালসলকেÑ তা নিয়ে কিছুটা দোটনায় রয়েছেন বিসিবির কর্তারা। টি-টোয়েন্টি সিরিজে সাফল্য পেলে বর্তমান টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের হাতেই দেওয়া হতে পারে টাইগারদের দায়িত্ব। ব্যর্থ হলে হয়তো রিচার্ড হ্যালসল!

মিরপুরে এদিন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের সঙ্গে সভা করেন কয়েকজন বোর্ড পরিচালক। সেখানেই অন্যান্য বিষয়ের সঙ্গে গুরুত্ব পায় কোচ নিয়োগের ব্যাপারটি। সভা শেষে জালাল ইউনুস জানিয়েছেন হেড কোচ নিয়োগে বিলম্বের কারণও। কোচ হিসেবে উপমহাদেশের কাউকে নিয়োগ দেওয়ার সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে বলেই জানা গেছে। এমনকি আলোচনা হয়েছে সৌরভ গাঙ্গুলির সঙ্গেও। তবে সেটা স্রেফ আলোচনা বলেই জানা গেছে।

জালাল ইউনুস বলেন, ‘এখন আমাদের সবচেয়ে প্রায়োরিটি হলো বাংলাদেশ টিমে একজন হেড কোচ নিয়োগ করা। আমরা চেষ্টা করছি। কিন্তু বাংলাদেশের জন্য যে ধরনের কোচ দরকার, সে ধরনের একজনকে নিয়োগ দিতে চাওয়াতেই দেরি হচ্ছে।’

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে