পুতিন সফল, রাশিয়া পেরেছে

  অনলাইন ডেস্ক

১৪ জুন ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৪ জুন ২০১৮, ০০:২৪ | প্রিন্ট সংস্করণ

রাশিয়া যখন ২০১৮ বিশ্বকাপের আয়োজক নির্বাচিত হয়েছিল, তখন বিশ্বজুড়ে গুঞ্জন ছিল। আর ব্রিটিশ মিডিয়া তো আগ বাড়িয়ে বলেছিল, রাশিয়া এ আয়োজনে ব্যর্থ হবে। বেলা ও জল অনেক গড়িয়েছে। রাশিয়া ১১টি শহরের ১২টি ভেন্যু প্রস্তুত করেছে। গত এক মাসে রাশিয়াতে পুরো বিশ্ব থেকে মানুষ এসেছে। কোথায় কোনো সমস্যা নেই। গত কয়েক দিনে উৎসবের নগরীতে পরিণত হয়েছে রাশিয়া। আসলেই বিশ্বকাপের দেশ হিসেবে রাশিয়া এবার অন্যরকম রেকর্ড গড়তে যাচ্ছে। গতকাল ২০২৬ বিশ্বকাপের আয়োজক হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো ও কানাডা। ফিফা কংগ্রেসে বক্তব্য রেখেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন। বক্তব্যে আত্মবিশ্বাসের সুর ছিল।

রাশিয়ার প্রথম চ্যালেঞ্জ ছিল এত সমর্থককে স্বাগত জানানো। আর রুশ ভাষা অন্য দেশের মানুষ খুব একটা ভালো পারেন না। আর রুশ নাগরিক অন্য ভাষায় খুব একটা কথা বলতে অভ্যস্ত না। রাশিয়া সমর্থকদের জন্য ফ্যান কার্ড করে ভিসামুক্ত করল। এতে অনেকে জটিলতা এড়িয়েছে। আর রাশিয়ায় সমর্থকরা ফ্রিতে এক শহর থেকে অন্য শহর যেতে পারবে। ট্রেন,বাস, মেট্রো সবখানেই ফ্রিতে চলাচলের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। ফ্যান ফেস্ট এবার অন্য বিশ্বকাপকে ছাড়িয়ে যাবে। রাশিয়া শখানেক ট্রেন সমর্থকদের জন্য প্রস্তুত রেখেছে। এ ছাড়া বাসের ব্যবস্থা তো রয়েছেই। হোটেল থেকে শুরু করে রাশিয়া এখন বিশ্ব নাগরিকদের নিরাপদ জায়গা। যারা হোটেল পাননি তারা ফ্যান ভিলেজে থাকতে পারবেন। ১১টি শহরেই এ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সব মিলিয়ে সফল রাশিয়া। রাশিয়ার মানুষ বন্ধুবৎসল। ভাষা না বুঝলে হাসছেন তবুও বিরক্ত হচ্ছেন না। উপকার করছেন সামর্থ্য অনুযায়ী। আইসিসের হুমকি ছিল। তা সত্ত্বেও রাশিয়া টুর্নামেন্ট সফলভাবে শুরু করতে যাচ্ছে।

ফিফা ৬৮তম কংগ্রেসে গতকাল পুতিন ধন্যবাদ জানিয়েছেন। আর বলেছেন, আমার দেশের জন্য ফিফা বিশ্বকাপ খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের এখানকার সবাই সেরা দলের খেলা দেখতে অধীর আগ্রহ নিয়ে বসে আছেন। আগামীকাল (আজ) স্বপ্ন সত্যি হচ্ছে। অনেক সমর্থক রাশিয়ায় এসেছেন। তারাও সাক্ষী হবেন এ বিশ্বকাপের। আমাদের লক্ষ্য অতিথিদের স্বাগত জানানো ও সাহায্য করা। আমাদের সব কিছুই অন্যরকম। এটা বিশ্বকে আমরা জানাতে পেরেছি। ধন্যবাদ।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে