অস্ত্রোপচারে সাকিবের তাড়া

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

১০ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১০ আগস্ট ২০১৮, ০৯:২০ | প্রিন্ট সংস্করণ

এশিয়া কাপের খুব বেশি দিন বাকি নেই। আগামী মাসের ১৫ তারিখ থেকে মাঠে গড়াবে টুর্নামেন্ট। বাংলাদেশ দল অবশ্য চলে যাবে এর আগেই। কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ক্যাম্প করবেন টাইগাররা।

তবে এশিয়া কাপে অনিশ্চিত সাকিব আল হাসান। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার যত দ্রুত সম্ভব আঙুলে অস্ত্রোপচার করাতে চান এবং তা এশিয়া কাপের আগেই। তিনি পুরোপুরি ফিট না হয়ে আর কোনো টুর্নামেন্টে খেলতে চাইছেন না। বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী সম্প্রতি জানিয়েছেন, অস্ত্রোপচার করলে দেড় থেকে দুই মাসের জন্য মাঠের বাইরে থাকতে হবে সাকিবকে।

জানুয়ারিতে দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাঁ হাতের কনিষ্ঠায় চোট পেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। পুরনো চোট ভোগাচ্ছে তাকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের শেষ দিকে হাতের ব্যথায় কাতর ছিলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। ব্যথানাশক ইনজেকশন নিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ দুই ম্যাচে খেলেছেন তিনি। আজ হোক কিংবা কাল হোক সাকিবের আঙুলে অস্ত্রোপচার লাগবেই।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর শেষ। গতকাল সকালে ঢাকায় ফিরেছেন টাইগাররা। সংবাদমাধ্যমকে সাকিব আল হাসান জানান তার ভাবনা। আঙুলে অস্ত্রোপচার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ফিজিও ভালো বলতে পারবেন। তবে এটা জানি, সার্জারি করতে হবে। কোথায় করলে ভালো হয়, কবে করলে ভালো হয় এখন এগুলো নিয়েই আলোচনা হচ্ছে। আমি মনে করি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব অস্ত্রোপচার করে ফেলা ভালো। খুব সম্ভবত এশিয়া কাপের আগেই হবে। আমি মনে করি সেটিই হওয়া উচিত। আমি চাই না পুরোপুরি ফিট না থেকে খেলতে।’

গত মঙ্গলবার বিসিবির প্রধান চিকিৎসক জানান, সাকিবের বাঁ হাতের লিটল ফিঙ্গারের জয়েন্ট ডিস-লোকেশন ছিল। তিনি বলেন, ‘সে মূলত ব্যাটিংয়ে সমস্যা অনুভব করছে। ওকে অস্ট্রেলিয়াতে একজন হ্যান্ড সার্জনের কাছে পাঠানো হয়েছিল। তার তত্ত্বাবধানে ওকে একটা ইনজেকশন দেওয়া হয়। এর পর প্রদাহ কিছুটা কমে আসে। ফলে গত কয়েক মাস সাকিব মোটামুটি পেইন ফ্রি থেকেই খেলতে পেরেছে। যদিও কিছু সমস্যা থেকেই গেছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘দল ফ্লোরিডা যাওয়ার পর সেখানকার ডাক্তার একটি ইনজেকশন দিয়েছেন। সেখানকার ডাক্তারও বলেছে এমন ম্যানেজমেন্ট খুবই অল্প সময়ের জন্য কাজে লাগবে। এ জন্য টিম ফেরার পর সাকিব, ম্যানেজমেন্ট ও সবাই মিলে একটা সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

কবে নাগাদ অস্ত্রোপচার করাবেন সাকিব তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ঈদের পর পরই অস্ট্রেলিয়াতে তার অস্ত্রোপচার করানোর সম্ভাবনা প্রবল। এর ফলে এশিয়া কাপ ছাড়াও জিম্বাবুয়ে সিরিজেও সাকিবের খেলা অনিশ্চিত। বলে রাখা ভালো, অক্টোবরে বাংলাদেশ সফরে আসবে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলবেন সফরকারীরা।

এবার এশিয়া কাপ হবে ওয়ানডে ফরম্যাটে। এ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ এখনো শিরোপা জেতেনি। তবে গত ছয় বছরে বাংলাদেশের সাফল্য বলার মতোই। গত তিনবারের দুবারই শিরোপার লড়াইয়ে নেমেছেন টাইগাররা। এশিয়া কাপে সাকিবের খেলা নিয়ে সংশয় থাকলেও দল নিয়ে আশাবাদী সাকিব। তিনি বলেছেন, ‘এ রকম একটা ভালো সিরিজের পর আমি বিশ্বাস করি, এখান থেকে হয়তো নতুন কিছু করার দিকে চিন্তা করতে পারি। তা ছাড়া দলের সবার আত্মবিশ্বাসও এখন অনেক উঁচুতে। যেটা আমাদের এশিয়া কাপে অনেক কাজে দেবে বলেই আমি মনে করি।’

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে