সিরিয়ার গ্রাম ‘দখল’ করেছে তুরস্ক

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৩ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ২৩ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:৫২ | প্রিন্ট সংস্করণ

কুর্দিবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে সিরিয়ার অভ্যন্তরে আফরিনের কয়েকটি গ্রাম দখল করেছেন তুরস্কের সেনারা। অভিযানের তৃতীয় দিনে তুর্কি কর্তৃপক্ষ এ দাবি করেছে। যদিও কুর্দিদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, দুটি গ্রাম পুনরায় তারা দখল করেছে। খবর বিবিসি।

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে বিস্তীর্ণ এলাকা কুর্দি সংগঠন ওয়াইপিজি ও সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সের (এসডিএফ) নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র এ দুটি সংগঠনের ৩০ হাজার সদস্যের একটি নিরাপত্তা বাহিনী গঠনের ঘোষণার দেয়। এর পর থেকে তুরস্ক ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে। তুরস্ক ওয়াইপিজিকে সন্ত্রাসী সংগঠন মনে করে। সে কারণে আঙ্কারা কোনোভাবেই চায় না তাদের নাকের ডগায় কুর্দিরা ঘাঁটি তৈরি করুক। এই কুর্দিদের হটাতে গত শনিবার অভিযান শুরু করে তুরস্ক। তুর্কি সেনাদের সঙ্গে রয়েছে ফ্রি সিরিয়ান আর্মি।

তুরস্কের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আনাদুলুর বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, গতকাল সোমবার আফরিনের সাংকার, কুর্নি, বালি ও আদাহ মানলি গ্রাম দখল করে নেন তুর্কি সেনারা। এ ছাড়া প্রান্তিক গ্রাম কিটা, কুরদু ও বিবনো দখলের দাবিও করে আনাদুলু। কিন্তু সিরিয়ার অবজারভেটরি জানায়, ওয়াইপিজি তুর্কি অভিযানের শক্ত জবাব দিচ্ছে। তারা প্রচ- সংঘর্ষের মধ্যে দুটি গ্রাম পুনরায় দখল করে নেয়। এ ছাড়া তুর্কি সেনাদের ওপর রকেট হামলার দাবিও করে কুর্দি সংগঠনটি। এদিকে সিরিয়া সরকারের মিত্র দেশ ইরান ও মিসর তুর্কি অভিযানের নিন্দা করেছে। গতকাল জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ এ নিয়ে জরুরি বৈঠকে মিলিত হয়।

অন্যদিকে তুরস্ককে সংযম প্রদর্শনের আহ্বান জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, এ অভিযানে বেসামরিক নাগরিকদের যেন কোনো ক্ষতি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে। এ ছাড়া আশু যুদ্ধবিরতির জন্য আহ্বান জানিয়েছে ফ্রান্স।

১৮ বেসামরিক নিহত

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় আফরিনে তুর্কি হামলায় শিশুসহ অন্তত ১৮ বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ মানবাধিকার পর্যবেক্ষণ সংস্থা সিরিয়ান অভজারভেটরি অব হিউম্যান রাইটস। সংস্থাটি জানায়, আফরিনে তুর্কি হামলা শুরু করার পর এই নিহতের কথা জানা যায়। তুর্কি মানবাধিকারকর্মীরা জানান, নারী ও শিশুসহ ১১ বেসামরিক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ১৬ জন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে