ইয়েমেনের হুদাইদায় সৌদি জোটের হামলা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৪ জুন ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ইয়েমেনের প্রধান বন্দরনগরী হুদাইদায় হামলা শুরু করেছে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট। গতকাল বুধবার ওই বন্দরে ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীদের সঙ্গে তাদের তুমুল লড়াই শুরু হয়। তিন বছরে এটাকে সবচেয়ে বড় লড়াই বলে মনে করা হচ্ছে। গতকাল এ খবর দেয় আলজাজিরা।

২০১৫ সালে ইয়েমেন সরকারকে সরিয়ে রাজধানী সানাসহ বেশ কয়েকটি এলাকার ক্ষমতা নিয়ে নেয় হুতিরা। নির্বাসিত ওই সরকার আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। তিন বছরে হুতিদের থেকে ইয়েমেনকে পুরোপুরি মুক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তারা। সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত তাদের সামরিক সহযোগিতা করে যাচ্ছে।

গতকালের হামলার বিষয়ে ইয়েমেন সরকার এক বিবৃতিতে বলেছে, ইয়েমেন বাহিনীর সহযোগিতা নিয়ে হুদাইদা আক্রমণ করেছে সৌদি জোট। তারা হুতি বিদ্রোহীদের লক্ষ্য করে এ হামলা শুরু করেছে। তবে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘হুদাইদা থেকে হুতিদের তাড়াতে শান্তিপূর্ণ ও রাজনৈতিক পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।’

এর আগে ইয়েমেনের প্রধান সমুদ্র বন্দরটির নিয়ন্ত্রণ ছেড়ে দিতে বিদ্রোহীদের সময় বেঁধে দেওয়া হয়। সময় পার হওয়ার পর গতকাল ‘গোল্ডেন ভিক্টরি’ নামে এই অভিযান শুরু করে সৌদি জোট।

রাজধানী সানা থেকে ১৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে লোহিত সাগরে অবস্থিত হুদাইদা বন্দর। এটিই দেশটির ইয়েমেনের যোগাযোগের প্রধান পথ। বন্দরটি দিয়ে মানবিক সংকটে থাকা ইয়েমেনের ৮০ শতাংশ প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি করা হয়। জাতিসংঘের মতে, ইয়েমেনে এখন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মানবিক সংকট চলছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, দেশটির প্রায় ৮৪ লাখ মানুষ দুর্ভিক্ষ-পূর্ব অবস্থায় আছে।

হুদাইদাই একমাত্র বন্দর, যা হুতিদের দখলে রয়েছে। সৌদি জোটের অভিযোগ, এই বন্দর দিয়ে অস্ত্র চোরাচালান হয়। তাই ইয়েমেন পুনরুদ্ধারের অন্যতম মাইলফলক হিসেবে দেখা হচ্ছে হুদাইদাকে হুতিমুক্ত করার অভিযানকে। ২০১৫ সালের মার্চ থেকে চলমান ইয়েমেন যুদ্ধে কম করে ১০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে