জানা-অজানায় বাজপেয়ি

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৭ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৭ আগস্ট ২০১৮, ১০:৫৫ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী, ভারতীয় জনতার পার্টির বর্ষীয়ান নেতা অটল বিহারি বাজপেয়ি গতকাল ৯৩ বছর বয়সে পরলোক গমন করেন। তার ঘটনাবহুল জীবন নিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তার উল্লেখযোগ্য অংশ এখানে তুলে ধরা হলো-

অটল বিহারি ১৯২৪ সালের ২৫ ডিসেম্বর মধ্যপ্রদেশের গওয়ালিয়রে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা ছিলেন কবি। কবিতার হাতেখড়ি বাবার কাছেই। ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে যুক্ত হয়ে কৈশোরে ২৩ দিন জেল খাটেন তিনি। রাজনীতি ছিল তার অস্থিমজ্জায়। ছাত্রজীবনেই ‘আর্যসমাজ’-এর সঙ্গে যুক্ত হন। বাবা সাহেব আপ্তের প্রেরণায় ১৯৩৯ সালে যোগ দেন আরএসএসে। এ সময় তিনি ভারতীয় জনসংস্থার প্রতিষ্ঠাতা শ্যামা প্রসাদের খুব ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠেন।

সেই ভারতীয় জনসংস্থাই পরবর্তীকালে বিজেপি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৭৫ সালে উত্তরপ্রদেশের বলরামপুর থেকে বাজপেয়ি প্রথমবারের মতো লোকসভায় নির্বাচিত হন। ১৯৬৮ সালে ভারতীয় জনসংঘের সর্বভারতীয় সভাপতি হন। ১৯৭৭ সালে জরুরি অবস্থার অবসান হয়। ইন্দিরাবিরোধী ঐক্য জোরদার করতে বাজপেয়ি-আদভানি ঐক্যে গঠিত হয় জনতা পার্টি। নির্বাচনে কংগ্রেসের ভরাডুবি হয়। সেই কংগ্রেসবিরোধী ঐক্য অবশ্য বেশিদিন টেকেনি। এর পর ১৯৮০ সালে জোটসঙ্গীরা বেরিয়ে গেলে তৈরি হয় আজকের ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি), যার সভাপতি হন বাজপেয়ি।

১৯৯৬ সালে লোকসভা নির্বাচনে একক দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে বিজেপি। দেশের দশম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন অটল। কিন্তু আস্থাভোটে হেরে গিয়ে মাত্র ১৩ দিনের মাথায় তার সরকারের পতন ঘটে। কিন্তু ইস্তফা দেওয়ার আগে বাজপেয়ি লোকসভায় যে ভাষণ দিয়েছিলেন তা ভারতীয় সংসদে স্মরণীয় ভাষণগুলোর একটি। ১৯৯৮ সালে আবার সরকার গঠন করে বিজেপি কিন্তু সেবারও পূর্ণ মেয়াদে ক্ষমতায় থাকতে পারেনি বাজপেয়ি। এবার তেরো মাসের মাথায় সরকারের পতন হয়।

এর পর ১৯৯৯ সালে ক্ষমতায় বসে প্রথম অকংগ্রেস প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পূর্ণ মেয়াদে ক্ষমতায় থাকার রেকর্ড করেন বাজপেয়ি। তৃতীয় দফায় ক্ষমতাকালে বেশ কিছু সাফল্য দেখিয়েছে বাজপেয়ি সরকার। দেশের অর্থনীতি মজবুত হয়েছিল। রাজকোষ দ্রুতই বৃদ্ধি হচ্ছিল। তার পরও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়ে যাওয়া, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার তোপে ২০০৪ সালে সাধারণ নির্বাচনে হেরে যায় এনডিএ জোট। পরাজয়ের দায় কাঁধে নিয়ে বিরোধী নেতার পদ থেকেও সরে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। ২০০৯ সালে নির্বাচনে লড়েননি তিনি। অকৃতদার বাজপেয়ির পরিজন বলতে দত্তক কন্যা। ভালোবাসতেন ঘুরে বেড়াতে, সিনেমা দেখতে। গোটা ভারত সেই নেতাকে আজ হারাল।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে