রাশিয়ার কাজ করতেন ট্রাম্প?

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৩ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | আপডেট : ১৩ জানুয়ারি ২০১৯, ০৯:৪৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কি গোপনে রাশিয়ার হয়ে কাজ করছিলেন? তিনি কি নিজ দেশের জাতীয় নিরাপত্তার হুমকি ছিলেন? এসব নিয়ে একটি তদন্ত শুরু করেছিল যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। এমন খবর দিয়েছে প্রভাবশালী মার্কিন গণমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমস। তবে হোয়াইট হাউস বলেছে, এ ধরনের খবর ভিত্তিহীন। ওই সংবাদপত্রকে প্রথম থেকেই ‘ভুয়া’ বলে অভিহিত করে আসছেন ট্রাম্প।

বিবিসি জানিয়েছে, এফবিআইপ্রধান জেমস কোমিকে বরখাস্তের পর সংশ্লিষ্টরা ট্রাম্পকে গভীরভাবে সন্দেহ করা শুরু করেছিলেন। তাদের ধারণা হয়েছিল, ট্রাম্প আসলেই যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থের বিরুদ্ধে কাজ করছেন এবং গোপনে রাশিয়ার হয়ে কাজ করছেন।

নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, তখন গোয়েন্দা কর্মকর্তারা দুটি সম্ভাবনার কথাই বিবেচনা করছিলেন, হয় ট্রাম্প জেনেশুনে রাশিয়াকে সহায়তা করছেন বা অসচেতনভাবে রাশিয়ার ফাঁদে পড়েছেন।

তদন্তকারীরা রাশিয়ার সঙ্গে আঁতাতের পাশাপাশি আরও একটি বিষয়ে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছিলেন। আর সেটি জেমস কোমির বিষয়ে। তাকে বরখাস্ত করে ট্রাম্প আইনি প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করেছেন কিনা তা খতিয়ে দেখা শুরু করেছিলেন তারা।

সাবেক এক মার্কিন নিরাপত্তা কর্মকর্তা নিউইয়র্ক টাইমসকে জানিয়েছেন, ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচার চলার সময় থেকেই ট্রাম্প-রাশিয়ার আঁতাতের বিষয়ে সন্দিগ্ধ হয়ে উঠেছিলেন এফবিআইয়ের কর্মকর্তারা। কিন্তু তারা তখন বুঝতে পারছিলেন না, এমন একটি স্পর্শকাতর বিষয়ে তদন্ত শুরু করাটা ঠিক হবে কিনা এবং এত বড় একটি বিষয় নিয়ে কীভাবে কাজ করা যেতে পারে। কিন্তু ২০১৭ সালের মে মাসে ট্রাম্প কোমিকে বরখাস্ত করলে সন্দেহ বেড়ে যায় গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের। তবে এ ধরনের খবরের ব্যাপারে ট্রাম্প টুইট করেছেন, ‘এমন কোনো তদন্ত শুরু হয়েছিল বলে প্রমাণ নেই। কোনো কারণও নেই বটে।’

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে